চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রোনালদোর ‘ইতিহাস’ই মেসির প্রেরণা হতে পারে

ফুটবলে সেরার ব্যক্তিগত দ্বৈরথ দীর্ঘদিন ধরেই আবর্তিত হচ্ছে মেসি ও রোনালদোকে আলোচনার কেন্দ্রে রেখে। আজ একজন মাঠ কাঁপিয়ে ফেরেন তো কাল আরেকজন। বিশ্বকাপেও লড়াইয়ের ভেতরের লড়াই দেখার সুযোগ আছে। যার প্রথম অংশে অনেকটাই এগিয়ে থাকলেন পর্তুগিজ অধিনায়ক। হিসাবটা এখন রোনালদো ৩, মেসি ০!

টুর্নামেন্টের হট ফেভারিট স্পেনের বিপক্ষে রোনালদোর বিশ্বকাপ শুরু হয়েছে শনিবার রাতে। যাতে ৩-৩ গোলের সমতা। পর্তুগিজদের তিন গোলই সিআর সেভেনের। হ্যাটট্রিকের প্রথম গোলটি এসেছে পেনাল্টিতে, দ্বিতীয়টি স্প্যানিশ গোলরক্ষক ডি গিয়ার খানিক ভুলে, আর তৃতীয়টি রোনালদো পান নান্দনিক এক ফ্রি-কিকে।

বিজ্ঞাপন

সেখানে মেসির বিশ্বকাপ মিশন শুরু হয়েছে রোববার। প্রথমবার বিশ্বকাপে আসা আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করে। পয়েন্ট হারানোর হতাশার সঙ্গী মেসির পেনাল্টি সুযোগ হাতছাড়ার হতাশাও।

বিজ্ঞাপন

মেসির এই ব্যর্থতা কতটা প্রভাব ফেলবে আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ যাত্রায়, সেটি সময়ই বলে দেবে। গ্রুপপর্বে এখনও সেরা হওয়ার সুযোগটাই তো আছে! সুযোগ আছে টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ারও! সেজন্য চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রোনালদোর পর্তুগালের ‘ইতিহাস’ থেকেই ঘুরে দাঁড়ানোর প্রেরণা নিতে পারেন মেসি ও তার আর্জেন্টিনা।

আইসল্যান্ড গত ইউরো আসরে চমক দেখিয়েছিল কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত খেলে। ২০১৬ আসরের ইউরোয় পর্তুগালের প্রথম লড়াই ছিল আইসল্যান্ডের বিপক্ষেই। দেখতে হয়েছিল ১-১ গোলে ড্র। সেই ম্যাচে গোলে ১০টি শট নিয়েও জাল খুঁজে পাননি রোনালদো।

আর্জেন্টিনার রাশিয়া বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচে প্রতিপক্ষ সেই আইসল্যান্ডই। মেসিদেরও মিলেছে ১-১ গোলের ফল। ম্যাচে প্রতিপক্ষের গোল বরাবর ১১টি শট নিয়েও জাল খুঁজে পাননি মেসিও।

মিলটা খুব দূরের নয়। দারুণ কিছুর ইঙ্গিতও আছে। সেটি প্রেরণা যোগাতে পারে আর্জেন্টিনাকে। কেননা ১০টি শট নিয়ে গোল না পাওয়া রোনালদো ১-১এ ড্র ম্যাচের পর ইউরোই জিতে ফিরেছিলেন! মেসিরা কি বিশ্বকাপে তেমন কিছু পারবেন?

Bellow Post-Green View