চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রেমিট্যান্স আহরণে ২০২০ সালে বাংলাদেশ হবে অষ্টম: বিশ্বব্যাংক

২০২০ সালে প্রবাসীদের পাঠানো অর্থ (রেমিট্যান্স) প্রবাহের ক্ষেত্রে বিশ্বের মধ্যে বাংলাদেশ অষ্টম অবস্থানে থাকবে বলে জানিয়েছে বিশ্বব্যাংক।

৩০ অক্টোবর বিশ্বব্যাংকের ওয়াশিংটন সদর দপ্তর থেকে প্রকাশিত ‘কোভিড-১৯ ক্রাইসিস থ্রো মাইগ্রেশন লেন্স’ শীর্ষক এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, এ বছর করোনার মধ্যেও দক্ষিণ এশিয়ার দুটি দেশের রেমিট্যান্স আরো বাড়বে। যার মধ্যে বাংলাদেশের বাড়বে ৮ শতাংশ। আর পাকিস্তানের বাড়বে ৯ শতাংশ।

এতে উল্লেখ করা হয়, মূলত ভ্রমণ নিয়ন্ত্রণের কারণে অপ্রাতিষ্ঠানিক থেকে প্রাতিষ্ঠানিক চ্যানেলে রেমিট্যান্স বৃদ্ধি পাওয়ায় চলমান মহামারি করোনার মধ্যেও বাংলাদেশে রেমিট্যান্স বাড়বে।

বিশ্বব্যাংক বলছে, ২০২০ সালে বাংলাদেশে রেমিট্যান্স আসবে ২০ বিলিয়ন ডলার। ফলে সর্বোচ্ছ রেমিট্যান্স আহরণকারী শীর্ষ ১০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ থাকছে অষ্টম স্থানে।

তবে রেমিট্যান্স প্রবাহের প্রথম স্থানে থাকছে ভারত। দেশটির রেমিট্যান্স আহরণ হবে ৭৬ বিলিয়ন ডলার।

এছাড়া রেমিট্যান্স আহরণে দ্বিতীয় স্থানে থাকবে চীন (৬০ বিলিয়ন ডলার) আর তৃতীয়তে মেক্সিকো (৪১ বিলিয়ন ডলার)।

বিজ্ঞাপন

শীর্ষ ১০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশের আগে দক্ষিণ এশিয়ার আরেকটি দেশ পাকিস্তান রয়েছে ষষ্ঠ অবস্থানে। দেশটির রেমিট্যান্সের পরিমাণ হতে পারে ২৪ বিলিয়ন ডলার।

তবে ভারত পরিমাণের দিক থেকে শীর্ষে থাকলেও এ বছর দেশটির রেমিট্যান্স কমবে ৯ শতাংশ। আর সামগ্রিকভাবে দক্ষিণ এশিয়ার রেমিট্যান্স কমবে ৪ শতাংশ।

অন্যদিকে দক্ষিণ এশিয়ার আরেকটি দেশ পাকিস্তানের ৯ শতাংশ বাড়বে।

বিশ্বব্যাংকের ওই প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপির) অনুপাতে বাংলাদেশ রেমিট্যান্স আহরণের ক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে চতুর্থ। যা জিডিপির ৬ দশমিক ২ শতাংশ।

এক্ষেত্রে প্রথমে রয়েছে নেপাল (২৩ শতাংশ), দ্বিতীয়তে পাকিস্তান (৯ দশমিক ১ শতাংশ) এবং তৃতীয়তে শ্রীলঙ্কা (৮ দশমিক ২ শতাংশ)।

এই রেমিট্যান্সের ওপর ভর করে একের পরে এক রেকর্ড গড়ছে বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার সঞ্চয়ন (রিজার্ভ)।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী, রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে ৪১ দশমিক শূন্য ৩ বিলিয়ন বা চার হাজার ১০৩ কোটি ডলারে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ৩ লাখ ৪৪ হাজার কোটি টাকা ছাঁড়িয়েছে (প্রতি ডলার ৮৪ টাকা ধরে)। এর আগে গত ৮ অক্টোবর রিজার্ভ ৪০ বিলিয়ন অতিক্রম করেছিল।