চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রেমিট্যান্স আরও গতিশীল, ১০ দিনেই এসেছে প্রায় বিলিয়ন ডলার

বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে দেশের অর্থনীতির চাকায় ধীর গতি থাকলেও গতিশীল রয়েছে রেমিট্যান্স প্রবাহ।

চলতি সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম ১০ দিনেই প্রায় ১০০ কোটি (১ বিলিয়ন) ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। যা গত বছরের এই সময়ের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণের কাছাকাছি।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

করোনার ধাক্কায় বিশ্বের অর্থনীতি হোঁচট খাওয়ায় অনেক প্রবাসী বাংলাদেশি শ্রমিককে কাজ হারিয়ে দেশে ফিরে আসতে হয়েছে। অনেকে ছুটিতে এসে আটকা পড়েছেন। ফলে গত এপ্রিল মাসে রেমিট্যান্স কমেছিল।

এপ্রিলে রেমিট্যান্স এসেছিল ১০৮ কোটি ৬৪ লাখ ডলার। ধারণা করা হয়েছিল প্রবাসী আয় কমে যেতে পারে। কিন্তু মে মাস থেকেই তা ঘুরে দাঁড়িয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যমতে, গত মে মাসে রেমিট্যান্স এসেছিল ১৫০ কোটি ৩০ লাখ ডলার।

বিজ্ঞাপন

এরপর চলতি অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে রেমিট্যান্স এসেছিল ২৬০ কোটি ডলার, যা ছিল একক মাস হিসেবে সর্বোচ্চ প্রবাসী আয়। তার আগে জুনে মাসে এসেছিল ১৮৩ কোটি ৩০ লাখ ডলার। আর আগস্ট মাসে ১৯৬ কোটি ৩৯ লাখ ডলার রেমিট্যান্স এসেছিল।

জানা গেছে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রায় ১ কোটির বেশি বাংলাদেশি শ্রমিক কাজ করছে। দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন তারা। দেশের জিডিপিতে তাদের পাঠানো এই রেমিট্যান্সের অবদান প্রায় ১২ শতাংশ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্যে দেখা গেছে,  চলতি সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম ১০ দিনে ৯২ কোটি ২০ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

কিন্তু গত বছরের এই ১০ দিনে রেমিট্যান্স এসেছিল ৫৩ কোটি ৪০ লাখ ডলার।

এই রেমিট্যান্সে ভর করেই দেশের বৈদেশিক মুদ্রার সঞ্চয়ন বা রিজার্ভ রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যমতে, গত ২০১৯-২০ অর্থবছরে মোট ১ হাজার ৮২০ কোটি ৩০ লাখ (১৮.২০ বিলিয়ন) ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। যা তার আগের ২০১৮-১৯ অর্থবছরের চেয়ে ১০ দশমিক ৮৭ শতাংশ বেশি।