চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রেকর্ড সংখ্যক পরীক্ষার্থীর অংশগ্রহণে শুরু হয়েছে ৩৮তম বিসিএস

৩৮তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা শুক্রবার সকাল ১০ টায় শুরু হয়েছে। পরীক্ষা চলবে ১২টা পর্যন্ত। দেশের মোট ২৮৩টি কেন্দ্রে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

পিএসসি জানিয়েছে, ৩৮তম বিসিএস প্রিলিমিনারিতে সারাদেশের ২৮৩টি কেন্দ্র তিন লাখ ৪৬ হাজার ৫৩২ প্রতিযোগী অংশ নেয়ার কথা। ঢাকায় রয়েছে ১৬২টি কেন্দ্র। অন্যান্য বিসিএস পরীক্ষার তুলনায় এবার আবেদন পড়েছে সর্বোচ্চ। ৩৮তম বিসিএসে তিন লাখ ৮৯ হাজার পরীক্ষার্থী আবেদন করে। যা আগের বিসিএসের চেয়ে এক লাখেরও বেশি। ৩৭তম বিসিএসে অংশ নেয় দুই লাখ ৪৩ হাজার ৪৭৬ জন।

বিজ্ঞাপন

পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস রোধে কড়া নজরদারি বসানো হয়েছে বলে পিএসসি সূত্রে জানা গেছে। প্রশ্নফাঁস রোধে বেশ কয়েক সেট প্রশ্নপত্র তৈরি করা হয়। কেন্দ্রগুলোতে গোয়েন্দা, র‌্যাব, পুলিশ ও আনসারসহ চারস্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কোথাও অনিয়ম ধরা পড়লে ঘটনাস্থলে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে অপরাধীকে শাস্তি দেবেন। এছাড়া দেশের প্রতিটি কেন্দ্রে পিএসসি নিজস্ব টাকায় দুটি করে মেটাল ডিটেক্টর সরবরাহ করেছে। প্রতিটি পরীক্ষার হলে একটি করে ঘড়িও কিনে দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

পিএসসির চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক গণমাধ্যমকে বলেন, সব অনিয়ম এড়াতে আমরা সতর্ক। ৩৮তম বিসিএসে সর্বোচ্চ আবেদনকারী হওয়ায় প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা আয়োজনে পিএসসির সদস্যসহ সকল কর্মকর্তা কেন্দ্র পরিদর্শনে থাকবেন। আগের চাইতে অনেক বেশি সতর্কতা অবলম্বন করতে এসব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

২০ জুন ২ হাজার ২৪টি শূন্য পদের জন্য ৩৮তম বিসিএস পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন। গত ১০ জুলাই থেকে শুরু হয় আবেদন। চলে ১০ আগস্ট বৃহস্পতিবার পর্যন্ত। কিন্তু ফরম পূরণের সময়ের পর ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত টাকা জমাদানের সময়সীমা নির্ধারিত থাকায় রোববার সন্ধ্যায় সম্পন্ন হয় এর আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম।

আর এতে দেখা যায় এবারে ২ হাজার ২৪টি পদের বিপরীতে লড়বেন ৩ লাখ ৪৭ হাজার প্রার্থী। অর্থাৎ প্রতি পদের বিপরীতে ১৭১ জন।

Bellow Post-Green View