চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রুনা লায়লাকে নিয়ে দালের মেহেন্দির উচ্ছ্বাস

৫ম বারের মতো পর্দা উঠলো তিন দিনব্যাপী ‘ঢাকা আন্তর্জাতিক লোক উৎসব’-এর

৫ম বারের মতো পর্দা উঠলো তিন দিনব্যাপী লোক গানের সবচেয়ে বড় আসর ‘ঢাকা আন্তর্জাতিক লোক উৎসব’-এর। আর শুরুর দিনেই দর্শকের মধ্যে মুগ্ধতা ছড়ালেন দেশি-বিদেশি শিল্পীরা।

এদিন সন্ধ্যার পর পরই জর্জিয়া থেকে আগত লোক গানের দল শেভেনেবুরেবি ঢাকার দর্শককে রীতিমত আচ্ছন্ন করে রাখেন! সুরে ও ঘোরে। আট জনের এই দলের প্রত্যেকেই লোক গানের বিভিন্ন ইনস্ট্রুমেন্ট বাজিয়ে প্রায় ঘন্টা খানেক দর্শককে মোহিত করে রাখেন।

বিজ্ঞাপন

এরপর প্রায় ত্রিশ মিনিটের অধিক সময় মঞ্চে গান পরিবেশন করেন শাহ আলম সরকার। তারপরই মঞ্চে আসেন শুরুর দিনের সবার আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা ভারতীয় শিল্পী দালের মেহেন্দি।

‘বাহুবলী’র সংগীতের তালে তালে মঞ্চে প্রবেশ তার। তুমুল কড়তালিতে ফেটে পড়ে পুরো আর্মি স্টেডিয়াম। মাইক্রোফোন হাতেই ঢাকার দর্শকের উদ্দেশ্যে কুশল বিনিময় করেন। দম ফেলেই গাইতে শুরু করেন তার গাওয়া জনপ্রিয় সব গান! দর্শক বুঁদ হয়ে থাকেন। সংগীতের তালে তালে এসময় বহু দর্শককে নাচতেও দেখা যায়।

হঠাৎ থামেন দালের মেহেন্দি। উচ্চারণ করেন বাংলাদেশের কিংবদিন্ত শিল্পী রুনা লায়লার নাম। চুপ দর্শক। কী বলতে চাইছেন দালের মেহেন্দি, এটাই শোনার চেষ্টা সবার!

দালের মেহেন্দি বলে উঠলেন, সংগীতের কোনো কাঁটাতার নেই, এই যেমন রুনা লায়লার মাধ্যমেই আমি বাংলাদেশকে চিনেছি। উনি শুধু উপমহাদেশে নয়, বরং সংগীত জগতে তিনি সবসময়ের হিট এবং মানুষের পছন্দের একজন শিল্পী।

এরপর রুনা লায়লার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ‘দমা দম মাসকালান্দার’ গানটি পরিবেশন করেন দলের সিং। রুনা লায়লাকে নিয়ে তার এই উচ্ছ্বাসে আর্মি স্টেডিয়ামে আগত দর্শক কড়তালিতে ফেটে পড়েন!

Bellow Post-Green View