চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রিমান্ডে থাকা সাহেদ হাসপাতালে

পদ্মা ব্যাংকের (সাবেক দি ফারমার্স ব্যাংক) অর্থ আত্মসাতের মামলায় রিমান্ডে থাকা রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ দুদকের সাত দিনের রিমান্ডের প্রথমদিনের পরই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

মঙ্গলবার সকালে দ্বিতীয় দিনের মতো রিমান্ডে দুদক প্রধান কার্যালয়ে আনার পথে বুকে ব্যথা বোধ করলে তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে নেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক (জনসংযোগ) প্রবণ কুমার ভট্টাচার্য এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, সাহেদ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়। তিনি সুস্থ হলে আগামীকাল তাকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

বিজ্ঞাপন

এর আগে, সোমবার সকালে কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে সাহেদকে সেগুনবাগিচায় দুদক কার্যালয়ে আনা হয়। পদ্মা ব্যাংকের অর্থ আত্মসাতের মামলায় দুদক কার্যালয়ে প্রথমদিনের মতো জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাকে।

তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক শাহজাহান মিরাজ। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বিকেল ৫ টায় সাহেদকে রমনা মডেল থানায় নেওয়া হয়।

এরআগে গত ১৫ জুলাই বুধবার ভোরে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার কোমরপুর সীমান্তের লাবন্যবতী নদীর উপর নির্মিত ব্রেইলী ব্রীজ এর নীচ থেকে সাহেদকে বোরখা পরিহিত অবস্থায় গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। সেসময় সময় তার কাছ থেকে একটি পিস্তল ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। এরপর তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়।

ওই দিন রাতে র‌্যাব-৬ এর সিপিসি-১ এর ডিএডি নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে ১৯৭৮ সালের আর্মস অ্যাক্টের ১৯-এ উপধারা এবং ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫ এর বি/এ ধারায় দেবহাটা থানায় একটি মামলা(৫নং) করেন। মামলায় মো. সাহেদসহ তিনজনকে আসামি করা হয়।