চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রাষ্ট্রপতির আহ্বান উপেক্ষার সুযোগ নেই

দেশের উদ্বেগজনক ডেঙ্গু পরিস্থিতি এবং সাম্প্রতিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ। পবিত্র ঈদ উল আজহা উপলক্ষে বঙ্গভবনের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি কিছু গুরুত্বপূর্ণ কথা বলেছেন। যেগুলো এড়িয়ে যাওয়ার কোনো উপায় আমাদের নেই।

বিশেষ করে ডেঙ্গু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘যদি আপনি নির্ধারিত স্থান ব্যতীত কোরবানির পশুর বর্জ্য যত্রতত্র রাখেন, তবে এতে এডিস মশার প্রজনন বৃদ্ধি পাবে। সুতরাং আপনি নিজ দায়িত্বে বাসা-বাড়ি ও এর আশপাশ পরিষ্কার রাখুন। আপনার খেয়াল রাখতে হবে, আপনার ঈদের আনন্দ যেনো অন্যের জন্য বিষাদের কারণ না হয়ে ওঠে।’

বিজ্ঞাপন

আমরা জানি, দেশের মুসলমানরা যখন ঈদ উল আজহা উদযাপন করছেন, তার কিছুদিন আগে থেকেই রাজধানীসহ পুরো বাংলাদেশেই ডেঙ্গুর প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকেই বলছেন, পরিস্থিতি বেশ ভয়াবহ। আজকে ঢাকা এবং রাজশাহীতে দুইজনসহ সরকারি হিসাবে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৪০ জনের। যদিও বেসরকারি হিসাবে এই সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ, ৭৬ জন। এছাড়াও গত এক সপ্তাহ ধরে প্রতিদিনই কমপক্ষে ২ হাজার জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আর গতকাল পর্যন্ত চিকিৎসা নিয়েছেন কমপক্ষে ৪০ হাজার মানুষ।

বিজ্ঞাপন

এটা ঠিক, এই পরিসংখ্যান দিয়ে দেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতির সঠিক চিত্র তুলে ধরা যাবে না। কিন্তু রাষ্ট্রপতির আহ্বানকে গুরুত্ব দিতেই হবে। কারণ রাষ্ট্রপতির মতো করে বিশেষজ্ঞরাও বলছেন, কোরবানির পশুর রক্ত বা বর্জ্য ঠিক মতো পরিষ্কার করা না হলে ডেঙ্গুর প্রকোপ আরো বাড়তে পারে। কেননা এসব বর্জ্য এডিস মশার প্রজননের ক্ষেত্র হয়ে উঠতে পারে।

তাই এই বিষয়টাকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে সবাইকে দেখতে হবে। না হলে ভয়াবহ বিপদে পড়তে হবে আমাদেরকে। ডেঙ্গুর পাশাপাশি আরেকটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় তুলে ধরেছেন রাষ্ট্রপতি। সেটা হলো, সম্প্রতি হয়ে যাওয়া বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে ধনী ব্যক্তিদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

আমরা জানি, গণপিটুনি আর ডেঙ্গুর মতো আলোচিত বিষয়ের কারণে বন্যা আলোচনার বাইরে চলে যায়। কিন্তু দেশের ২৮টি জেলা বন্যায় আক্রান্ত হয়েছে। ক্ষয়ক্ষতির প্রকৃত হিসাব এখনো জানা না গেলেও বড় ধরনের ক্ষতির কথা জানিয়েছে কৃষি অধিদপ্তর। এ কারণে তাদের অনেকেই ঈদের আনন্দ থেকে বঞ্চিত হয়েছে। তাই রাষ্ট্রপতি তাদের পাশে দাঁড়াতে বলেছেন।

আমরা মনে করি, রাষ্ট্রপতির এই আহ্বান কোনোভাবেই এড়িয়ে যাওয়ার বা উপেক্ষার সুযোগ নেই। আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই দুই সমস্যার বিরুদ্ধে দাঁড়াতে হবে।