চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় দৈনিক সংগ্রামের রুহুল আমিন গাজী গ্রেপ্তার

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএফইউজের একাংশের সভাপতি ও দৈনিক সংগ্রামের প্রধান প্রতিবেদক রুহুল আমিন গাজীকে মগবাজার অফিস থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার বিকালে হাতিরঝিল থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

বিজ্ঞাপন

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. ওয়ালিদ হোসেন জানান: রুহুল আমিন গাজীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের একটি মামলায় ওয়ারেন্ট ছিল। এ কারণে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মামলার বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানা যায়নি।

তবে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া জামায়াত নেতা আবদুল কাদের মোল্লাকে ‘শহীদ’ অভিহিত করে প্রতিবেদন প্রকাশের জন্য রাষ্ট্রদ্রোহের যে মামলায় সংগ্রাম পত্রিকার সম্পাদক আবুল আসাদ ১০ মাসের বেশি কারাবন্দি আছেন, সেই মামলার আসামি রুহুল আমিন গাজীও।

একাত্তরে যুদ্ধাপরাধের দায়ে ২০১৩ সালের ১২ ডিসেম্বর ফাঁসি কার্যকর করা হয় কাদের মোল্লার।

বিজ্ঞাপন

সেই দিনের স্মরণে গতবছরের ১২ ডিসেম্বর জামায়াতে ইসলামীর মুখপত্র হিসেবে পরিচিত দৈনিক সংগ্রামের প্রথম পাতায় একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়, যার শিরোনাম ছিল ‘শহীদ আবদুল কাদের মোল্লার ৬ষ্ঠ শাহাদাত বার্ষিকী আজ’।

এর প্রতিবাদে পরের দিন ১৩ ডিসেম্বর দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে প্রতিবাদ সমাবেশ করে সংগ্রাম পত্রিকার কয়েকটি কপি পোড়ান ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী। বিকেলে দৈনিক সংগ্রামের কার্যালয় ঘেরাও ও ভাঙচুর করেন বিক্ষুব্ধরা।

দৈনিক সংগ্রামের কার্যালয়টি জামায়াত-শিবিরের অস্থায়ী কার্যালয় হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে অভিযোগ করে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পত্রিকাটির ‘ডিক্লারেশন’ বাতিলের দাবি জানানো হয় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ নামে একটি সংগঠনের পক্ষ থেকে।

ওই ঘটনার পর সংগ্রামের সম্পাদক আবুল আসাদকে ওই রাতেই হাতিরঝিল থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। ৩৬ নম্বর ওয়ার্ড মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোহাম্মদ আফজাল ওই থানায় মামলা দায়ের করেন।

দণ্ডবিধির রাষ্ট্রদ্রোহের ধারা ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা এ মামলায় আবুল আসাদ ও রুহুল আমিন গাজী ছাড়াও পত্রিকাটির বার্তা সম্পাদক সাদাত হোসেনের নাম উল্লেখ করা হয়। এছাড়া অজ্ঞাতনামা আরও ৬-৭ জনকে আসামি করা হয় মামলায়।

ওই মামলায় এখনও কারাগারে আছেন সংগ্রাম সম্পাদক আবুল আসাদ। গত মাসে হাইকোর্ট তাকে এক বছরের অন্তর্বর্তী জামিন দিলেও তা আটকে দেন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত।