চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রাম রহিমের রায় দিতে হেলিকপ্টারে হরিয়ানায় বিচারক

ধর্ষণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত ভারতের তথাকথিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিংয়ের রায় ঘোষণার জন্য সরকারি হেলিকপ্টারে করে হরিয়ানার রোহতাকে আনা হয়েছে বিচারক জগদীপ সিংকে। ভারতের সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন -সিবিআইয়ের বিশেষ আদালত রোহতাকের কারাগারে রাম রহিমের বিরুদ্ধে সোমবার রায় ঘোষণা করবেন।

ঝুঁকি এড়াতে জেলগেটেই বসানো হয়েছে অস্থায়ী আদালত। রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে হরিয়ানা, পাঞ্জাব ও দিল্লিসহ গোটা ভারতে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

রাম রহিম সিংয়ের রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে হরিয়ানার পঞ্চকুলা, চন্ডিগড় ও মোহালিসহ অন্যান্য রাজ্যগুলোতে। সহিংসতা রুখতে গুরমিত সিংয়ের ১০৩টি ডেরা থেকে তার ভক্তদের সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় তিন স্তরের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি রয়েছে রাজ্যগুলোতে। রোহতাকে ৯ হাজার পুলিশ ও আধসামরিক সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। রাম রহিমের অনুসারীরা বিশৃংখলা সৃষ্টি করলে ওপেন ফায়ারের নিদের্শ দিয়েছেন রোহতাকের ডেপুটি কমিশনার। বিশেষ আদালত রোহতাকের কারাগারের আশপাশে নেয়া হয়েছে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা।রাম রহিম সিং

রায় উপলক্ষে পাঞ্জাব প্রশাসন ২৯ আগস্ট পর্যন্ত মোবাইলে ইন্টারনেট, এসএমএস সেবা বন্ধ রেখেছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

শুক্রবার সিবিআই আদালত রাম রহিমকে দুই নারী ভক্তকে ধর্ষণের দায়ে দোষী সাব্যস্ত করায় হরিয়ানা, পাঞ্জাব ও দিল্লির বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক বিক্ষোভ করে তার ভক্তরা। নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে তথাকথিত ধর্মগুরুর ভক্তদের সংঘর্ষে ৩৮ জন নিহত এবং আড়াইশ’র বেশি অনুসারী আহত হয়।

বিজ্ঞাপন