চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রাম চরণের ৩৬: সিনেমার ক্যারিয়ার এক যুগ

মুক্তির প্রতীক্ষায় আছে রাম চরণ অভিনীত বিগ বাজেটের ছবি ‘আরআরআর’

৩৬ বছর পূর্ণ করে ৩৭ এ পা রাখলেন দক্ষিণ ভারতের সুপারস্টার রামচরণ। ১৯৮৫ সালের এই দিনে জন্ম গ্রহণ করেন তিনি। তার বাবা তেলেগু সিনেমার সুপারস্টার চিরঞ্জীব।

২০০৭ সালে পুরী জগন্নাথ পরিচালিত তেলেগু সিনেমা ‘চিরুথা’র মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে অভিষেক হয়েছিল তার। তবে দীর্ঘ ১২ বছরের ফিল্ম ক্যারিয়ারে রামচরণ অভিনয় করেছেন মাত্র ১২টি সিনেমাতে। কিন্তু তারপরেও এই অভিনেতা তার ফিল্ম ক্যারিয়ারে যথেষ্ট জনপ্রিয়।

চলুন অভিনেতার জন্মদিনের এই বিশেষ দিনে এক নজরে দেখে নেওয়া যাক তার অভিনীত জনপ্রিয় ৫টি সিনেমার কথা:

রাঙ্গাস্থালাম
২০১৮ সালে মুক্তি প্রাপ্ত রামচরণ অভিনীত ‘রাঙ্গাস্থালাম’ ছবিটির পরিচালনা করেছিলেন সুকুমার। জনপ্রিয় এই সিনেমাটিতে রামচরণকে দেখা গিয়েছিল চিট্টিবাবুর চরিত্রে। সিনেমাটি দর্শক মহলে যেমন প্রশংসিত হয়েছিল ঠিক তেমনি সেসময় বক্স অফিসও হিট হয়েছিল।

ধ্রুভ
‘ধ্রুভ’ সিনেমাতে রামচরণকে দেখা গিয়েছিল একজন পুলিশ অফিসারের চরিত্রে। যিনি সর্বদা অপরাধ ও অপরাধীদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতে সোচ্চার থাকেন। ২০১৬ সালে মুক্তি প্রাপ্ত এই সিনেমাটিও বক্স অফিস হিট হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

মাগাধীরা
২০০৯ সালে মুক্তি প্রাপ্ত ‘মাগাধীরা’ সিনেমাটি ছিল রামচরণ অভিনীত দ্বিতীয় সিনেমা। পুনর্জন্ম ও পিরিয়ড ড্রামা নিয়ে নির্মিত এই সিনেমাটির গল্পকার ছিলেন এস এস রাজামৌলি। এই সিনেমাটিও দর্শক মহলে ব্যাপক সাড়া ফেলে সেসময়। বক্স অফিসেও বড় হিট এনে দিয়েছিলো মাগাধীরা।

নায়ক এবং ইভাদু
ভিভি বিনায়ক পরিচালিত ‘নায়ক’ ছবিটিতে রামচরণকে দেখা দেখা যায় দ্বৈত চরিত্রে। অপরদিকে বামশি পেডিপল্লি পরিচালিত ‘ইভাদু’ সিনেমাটিতে রামচরণকে প্রথমবারের মত দেখা গিয়েছিল দক্ষিণের আরেক সুপারস্টার আল্লু অর্জুনের সাথে। এই দুই সিনেমাই বক্স অফিস হিট হয়েছিল।

অরেঞ্জ
‘অরেঞ্জ’ ছবিটির নির্মাতাদের জন্য তেমন ফলপ্রসূ উদ্যোগ না হলেও এটি রামচরণকে এমন একটি ভূমিকায় উপস্থাপন করা হয়, যে রূপে তাকে কখনও দেখা যায়নি। ছবির চরিত্রটির জন্য অভিনেতা ব্যাপক প্রশংসিত হন। -ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

বিজ্ঞাপন