চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রাবেয়া খাতুনের গল্পে ঈদের নাটক ‘ক্রিস্টালের রাজহাঁস’

প্রখ্যাত সাহিত্যিক রাবেয়া খাতুনের গল্পে নির্মিত হয়েছে ঈদের নাটক। নাটকের নাম ‘ক্রিস্টালের রাজহাঁস’। মাসুম শাহরিয়ারের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন আবু হায়াত মাহমুদ।

নাটকটি চ্যানেল আইয়ে দেখা যাবে ঈদের দিন রাত ৭টা ৪০ মিনিটে। নাটকে অভিনয় করেছেন ইরফান সাজ্জাদ, মিথিলা প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

নাটকের গল্পে দেখা যাবে: রাইমার ছেলেবেলা কেটেছে বিদেশে। কাজেই বালি সহজাত অনুভূতির পাশাপাশি রাইমা যথেষ্ট আধুনিকা একটা মেয়ে। ২৩ বছর বয়সে মুহূর্তের ভালো লাগা থেকেই আদিবকে বিয়ে করেছিল রাইমা। রাইমার ফটোগ্রাফির শখ ছিল। সেই শখ এক সময় ওর প্রফেশন হয়ে দাঁড়ায়। একটা আন্তর্জাতিক জিও জার্নালের জন্য নিয়মিত কাজ করে।

বিজ্ঞাপন

গল্পের শুরুতেই দেখা যাবে, রাইমা একটা এসাইনমেন্টে ঢাকার একটু বাইরে যায়। আদিব তাকে আনতে যায়। ফেরার পথে ভয়ঙ্কর এক্সিডেন্ট। দুজনকেই হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। রাইমা বেঁচে গেলেও আদিব মারা যায়। আর তখনই জানা যায়, রাইমা সন্তান সম্ভবা। অনেকেই রাইমাকে পরামর্শ দেয় সন্তানকে পৃথিবীতে না আনার। তার পুরো জীবন পড়ে আছে সামনে কিন্তু রাইমার শ্বাশুড়ি তার একমাত্র ছেলে রক্ত দেখতে চায়। সেই শ্বাশুড়ি আবার বদলেও যায় এক সময়। রাইমার মধ্যবিত্ত মানসিকতার শ্বাশুড়ি কথায় কথায় ছেলের মৃত্যুর জন্যে রইমাকে দায়ী করে।

ছেলের জন্মের পর রাইমা তার মার কাছে চলে আসে। বাবা মারা গেছে বছর দুই আগে। রাইমার ছেলের বয়স যখন আড়াই বছর রাইমা তখন আবার কাজে মনোযোগ দেয়। টিভি জার্নালিস্ট জিশানের সঙ্গে রাইমার পরিচয় হয়। তাদের মধ্যে বন্ধুত্ব হলেও রাইমার সন্তানের কারণেই যেন এক ধরনের দূরত্ব থাকে। ভালোলাগার কথা জিশান প্রকাশ করতে পারে না। রাইমাও টের পায় জিশানের প্রতি ওর নির্ভরতা। ছোট ছোট ঘটনার অনুসঙ্গে বন্ধুত্ব গভীর হলেও তারা দূরত্ব ঘোচাতে পারে না। এদিকে রাইমার ছেলেটাও জিশানকে খুব পছন্দ করে। তারপর?

সেটা জানতে হলেই দেখতে হবে নাটক ‘ক্রিস্টালের রাজহাঁস’।