চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রাজু আলীমের নায়িকা পপি ও মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ শিলা

মারুফ রিমন: রাজু আলীম। একাধারে কবি, সাংবাদিক, উপস্থাপক, টিভি প্রযোজক ও চলচ্চিত্র পরিচালক। সম্প্রতি ‘ভালোবাসার প্রজাপতি’ নামে একটি সিনেমার পরিচালক হিসেবে কাজ করছেন। একই সঙ্গে ছবিটিতে নায়ক হিসেবেও অভিনয় করছেন। ছবিটির নানা প্রসঙ্গ ও ব্যক্তিগত ক্যারিয়ার নিয়ে বিনোদন প্রতিবেদনের সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি।

ক্যামেরার পেছনেই বেশি কাজ করতে দেখা যায় আপনাকে। একটা চ্যানেলের গুরুত্বপূর্ণ পদেও আসিন আছেন। অভিনয়ে কেনো আসা?
অভিনয়ে কিন্তু আমি নতুন না। পাশাপাশি সংস্কৃতি অঙ্গন নিয়েই আমার কাজ, সঞ্চালনাও করছি। সবকিছু মিলিয়েই অভিনয়ের পথে হাটা। তবে অভিনয় আমার পেশা নয়, ভালোবাসার জায়গা।

বিজ্ঞাপন

সিনেমাতে অভিনয় শুরু কি মনে করে?
যে কোন অভিনেতারই সিনেমায় অভিনয় করার স্বপ্ন থাকে। আর আমরা যারা ছোটবেলা থেকে সিনেমা দেখে বড় হয়েছি তাদের সবাই সে সময় থেকেই নিজেকে নায়ক ভাবতে ভালোবাসেন। তখন থেকেই সিনেমায় কাজ করার প্রবণতা তৈরি হয়। স্বপ্ন দেখে নায়ক হওয়ার।

বিজ্ঞাপন

প্রথম ছবিতেই পপির বিপরীতে নায়ক হিসেবে অভিনয় করছেন। নায়িকা হিসেবে পপিকে বেছে নেয়া কেনো?
ছোটবেলায় আমার ক্রাশ ছিলো সোফিয়া লরেন। তাকে নিয়েই আমাদের কল্পনার জগত আবৃত ছিলো। পরে যখন নিয়মিত বাংলা ছবি দেখা শুরু করি তখন ববিতা হয়ে উঠে আমার প্রিয় নায়িকা। ববিতার পর যার অভিনয় সবচেয়ে ভালো লাগে, যার অভিনয়ে মুগ্ধ হই, তিনি পপি। তার অভিনয়ের প্রতি অন্যরকম ভালো লাগা আমার। আর সিনেমাতে অভিষেক হবে সেটা ভালো অভিনেত্রীর বিপরীতেই হোক এটাই চেয়েছি।

বিজ্ঞাপন

পপির বিপরীতে অভিনয় করতে কেমন লাগছে?
সেই ‘কুলি’ ছবি থেকে শুরু করে পপির ক্যারিয়ারের প্রায় ছবিগুলোই আমার দেখা। কাজেই পপি যে তুখোড় একজন অভিনেত্রী সেটা আমার ভালো করেই জানা। তাই তার বিপরীতে কাজ করতে গিয়ে প্রথমে কিছুটা জড়তা কাজ করেছে। তবে পপি যত বড় অভিনেত্রী ততটাই ভালো একজন মানুষ। শুটিংয়ে যথেষ্ট সহযোগিত করছেন তিনি।

‘ভালোবাসার প্রজাপতি’ কি ধরনের গল্পের ছবি?
করোনাকালীন আমাদের প্রেম, মানবিকতা এবং মহামারির ফলে আমাদের সামাজিক ও ব্যক্তিগত জীবনে কতোটা প্রভাব পড়ছে এটাই দেখানো হবে ছবিটিতে। গল্পের প্রয়োজনে ছবিটির আর্টিস্ট নির্বাচনের ক্ষেত্রে চমক রয়েছে।

সেটা কি ধরনের চমক?
এই সিনেমার মাধ্যমে অনেকগুলো নতুন মুখের অভিষেক হচ্ছে। তবে সিনেমায় নতুন মুখ হলেও তারা পরিচিত মুখ। এদের মধ্যে রয়েছে মডেল খালিদ মাহবুব তুর্য, মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ শিলা ইশ্বরী, আলিশা, নবাগত প্রিয়মনি, লাক্স তারকা তানিন তানহা, ফেস অফ এশিয়া মেহেদী পলাশ ও ডক্টর তেহরিনসহ আরও অনেকে। ছবিটি গান রয়েছে পাঁচটি। তার মধ্যে অনিমা রায়ের গাওয়া একটি চমৎকার রবীন্দ্র সংগীত রয়েছে। রয়েছে ডিজে সনিকার একটি গান। যে গানের সঙ্গে পারফর্মও করেছে সে। সিনেমার গান হিসেবে এটি আলাদা একটা মাত্রা যোগ করবে বলেই মনে করছি। আরও থাকছে সাবরিনা সাবা, নুসরাত বৃষ্টি, কামাল পাশার কণ্ঠের গান। গানগুলোর সঙ্গীত পরিচালনা করছেন আজম বাবু। এছাড়াও সামনে দেশের প্রথম সারির এক নায়ককে যুক্ত করে আরও চমক দেয়ার চেষ্টা করছি।

ছবিটি কি হলে মুক্তি দেয়া হবে?
এটি ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত ছবি। আমার আগের ছবি ‘ভালোবাসার রাজকন্যা’ও একই প্রযোজনা থেকে নির্মিত। সেটা যেমন হলে মুক্তি পেয়েছে এটিও মহাসমারোহে হলে মুক্তি দেয়া হবে। আমি চাই আমার ছবি দর্শকরা হলে গিয়েই দেখুক। উপভোগ করুক।