চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন বন্ধের সুযোগ করে দিচ্ছে ফেসবুক

ফেসবুকে এতদিন সত্য-মিথ্যা রাজনৈতিক প্রচারণা চালানোর সুযোগ থাকলেও এবার তা বন্ধ করার অপশন আনছে কর্তৃপক্ষ। এখন থেকে এই সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহারকারীরা ইচ্ছা করলে রাজনৈতিক প্রচারণা নিজ থেকে ব্লক করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ।

মঙ্গলবার এক ঘোষণায় জাকারবার্গ জানান, ২০২০ সারের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র্রের নির্বাচনকে সামনে রেখে ব্যবহারকারীরা রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন দেখলে তা ব্লক করতে সক্ষম হবেন।

বিজ্ঞাপন

বিবিসি বলছে, রাজনীতিবিদদের মিথ্যা তথ্য প্রচারের সুযোগ করে দিচ্ছে বলে এতোদিন সমালোচিত হয়ে আসছিলো ফেসবুক। এখন সেই সমালোচনা থেকে বেরিয়ে আসার সুযোগ নিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার অবশ্য বহু আগেই রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে। গত বছরের নভেম্বর থেকে তারা নিজেদের সিদ্ধান্ত কার্যকর করে।

বিজ্ঞাপন

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান বলেছিলেন যে, রাজনৈতিক বার্তা জনগণের কাছে এত দ্রুত পৌঁছানোর সুযোগ টাকার বিনিময়ে কিনতে পারা অনুচিত।

কিন্তু একই সময়ে মার্ক জাকারবার্গ রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন বন্ধ না করার সিদ্ধান্ত জানিয়েছিলেন। কোনো প্রতিষ্ঠানের রাজনৈতিক বা গণতান্ত্রিক সংবাদকে সেন্সর করা সঠিক সিদ্ধান্ত নয় বলে মনে করতেন তিনি।

তখন তিনি বলেছিলেন, গণতন্ত্রের জন্যই বেসরকারি সংস্থাগুলোর রাজনৈতিক সংবাদের সেন্সর করা ঠিক নয়। তবে এবার সমালোচনার মুখে সে জায়গা থেকে সরে আসছেন তিনি।

জাকারবার্গ বলেছেন, আপনারা যারা ইতোমধ্যে এমন মানসিকতা তৈরি করেছেন যে, কেবল নির্বাচনে অংশ নিতে চান, আমরা তাদের কথা শুনছি। তাই আমরা রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন বন্ধ করার ক্ষমতা প্রবর্তন করছি।

ফেসবুক এবং এর সহায়ক সংস্থা ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীদের রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন বন্ধ করার ব্যাপারে সেটিংসে ব্লক অপশন চালু করছে। শিগগিরই মার্কিন ব্যবহারকারীরা সেই সুযোগ পেতে যাচ্ছেন। ধীরে ধীরে অন্য দেশের ব্যবহারকারীরাও সে সুযোগ পাবেন।