চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যৌন হয়রানির অভিযোগে চেয়ারম্যান পদ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষককে অব্যাহতি

এক শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানিসহ বেশকিছু অভিযোগে গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি)’র সহকারী অধ্যাপক এইচ এম আনিসুজ্জামানকে কৃষি বিভাগের চেয়ারম্যান পদ থেকে সাময়িকভাবে অব্যাহতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

গত ২৫ জানুয়ারী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মো: মোরাদ হোসেনের সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে, অধ্যাপক এইচএম আনিসুজ্জামান এর স্থলে কৃষি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো: মোজাহার আলীকে বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০০১ এর ২৫(৩) ধারা মোতাবেক কৃষি বিভাগের চেয়ারম্যানের অতিরিক্ত দায়িত্ব অর্পণ করা হলো। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই আদেশ বলবৎ থাকবে বলে জানানো হয়।

Reneta June

বিজ্ঞাপন

ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মো: মোরাদ হোসেন জানান, অভিযোগের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে৷ তদন্ত কমিটির রিপোর্টের প্রেক্ষিতে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে৷

তবে এসমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে ওই শিক্ষক জানিয়েছেন, গেল শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে আমি অংশ নিয়েছিলাম বলেই প্রতিপক্ষরা আমাকে ফাঁসাতে নকল কন্ঠ দিয়ে আমার ব্যক্তিগত ও শিক্ষকতা জীবনের ভাবমুর্তি ক্ষুণ্ন করতে এ ধরনের মিথ্যা অপবাদ ছড়িয়ে বেড়াচ্ছে। ঘটনার তীব্র-প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে বিচার বিভাগের মাধ্যমে সুষ্ঠ তদন্তের দাবি জানিয়েছেন তিনি।

এর আগে শিক্ষার্থীরা তার নামে রেজিস্টার বরাবর প্রশ্নপত্র ফাঁস, পরীক্ষার নম্বরপত্রে গড়মিল, ইচ্ছামতো নম্বর বসানো, অর্থনৈতিক অনুদান ও আর্থিক হিসাব নিকাশে অস্বচ্ছতা, শিক্ষার্থীদের ইচ্ছাকৃতভাবে অকৃতকার্য করানোর হুমকি প্রদানের অভিযোগ আনেন।

বিভাগের এক শিক্ষার্থীর সাথে অনৈতিক সম্পর্কের বিষয়টিও অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়। পরবর্তীতে যৌন হয়রানির ফোনালাপ ফাঁস হলে বিষয়টি সকলের সামনে আসে।

এ পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে।