চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যৌতুকের দাবিতে দুই গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: যৌতুকের দাবিতে সাতক্ষীরায় দুই গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এর মধ্যে এক গৃহবধূর মৃত্যুর পর তার স্বামী ও স্বামীর পরিবারের সদস্যরা মুখে কীটনাশক ঢেলে বিষয়টিকে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে।

শুক্রবার সকালে শহরের কামাননগরে গৃহবধূ সুমাইয়া খাতুনকে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বিজ্ঞাপন

সুমাইয়া কামাননগরের সাকিব হোসেনের স্ত্রী।

নিহত সুমাইয়ার খালা ফাতেমা তুজ জোহরা জানান: স্বামী সাকিব তাকে যৌতুকের জন্য প্রায়ই নির্যাতন করতো। শুক্রবার ভোরে সেহরি খাবার পর সাকিব তাকে পিটিয়ে তার গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঘরের আড়ায় ঝুলিয়ে রাখে। দ্রুত তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সুমাইয়ার লাশের ময়না তদন্ত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় সাতক্ষীরা থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। স্বামী সাকিব পলাতক।

অন্যদিকে তালা উপজেলার চাঁদপুর গ্রামে বিলকিস খাতুন (২২) নামের অপর এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার পর তার মুখে বিষ ঢেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

তার বাবা একই উপজেলার সেনেরগাঁতি গ্রামের প্রতিবন্ধী শওকত হোসেন অভিযোগ করে বলেন: কবির শেখ ৭০ হাজার টাকা যৌতুকের দাবিতে তাকে বৃহস্পতিবার বিকালে মারপিট করে। এতে সে মারা যায়।

তিনি বলেন: পরে কবির ও তার পরিবারের সদস্যরা তার মুখে কীটনাশক ঢেলে বিষয়টি আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে।

ময়না তদন্তের জন্য তার লাশ পাঠানো হয়েছে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল মর্গে।