চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যে বই পাল্টে দিয়েছিল কোহলিকে

মাঠে নামলেই যার ব্যাট হাসে। শতক আসে হেসেখেলে। সেই বিরাট কোহলি নিজের এমন সাফল্যের রহস্য জানিয়েছেন।

দিল্লীতে জন্ম নেয়া এই ক্রিকেটার শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, একজন ‘যোগীর আত্মজীবনী’ নামের এই বইটি পড়ে আমার জীবন দর্শন পাল্টে গেছে।

কোহলি সবশেষ বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করেন। যার সুবাদে স্যার ডন ব্র্যাডম্যান এবং রাহুল দ্রাবিড়কে একটি রেকর্ডের দিক থেকে টপকে যান। দ্রাবিড় এবং ব্র্যাডম্যানের টানা তিন সিরিজে দ্বিশতক করার নজির আছে। কোহলি করলেন চার সিরিজে।

বিজ্ঞাপন

টুইটারে কোহলিকে যে বইটি হাতে দেখা গেছে সেটি লিখেছেন পরমহংস যোগানন্দ।

কোহলি সকলকে এই বইটি পড়তে পরামর্শও দিয়েছেন, ‘বইটি আমি ভালোবাসি। যারা নিজেদের চিন্তাভাবনাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিতে চান, তাদের অবশ্যই এটি পড়া উচিত। বইয়ের মর্মার্থ আপনার পুরো জীবনের চিন্তাচেতনা বদলে দেবে। ঐশ্বরিক শক্তিতে বিশ্বাস রাখুন এবং ভালো কাজের সন্ধান অব্যাহত রাখুন।’

কয়েকদিন আগে কোহলির ছেলেবেলার কোচ রাজকুমার শর্মা বলেন, যোগাসনের কারণেই কোহলি দিনদিন বদলে যাচ্ছে। ক্রিকেটনেক্সট নামের একটি ওয়েবসাইটের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘কোহলি একটা সময় ফাস্টফুডের দারুণ ভক্ত ছিল। আমি ওকে এসব খেতে নিষেধ করতাম। শুনতে চাইতো না। পরে এক সময় নিজে থেকে যোগাসন শুরু করে। সেই থেকে সব বদলে যেতে থাকে।’

বিজ্ঞাপন