চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যে বইয়ের মূল চরিত্র আইরা ও মিথিলা!

গায়িকা, মডেল, অভিনেত্রী, সমাজকর্মী রাফিয়াথ রশিদ মিথিলা আগে থেকে লেখালিখির সাথে সম্পৃক্ত। দু’বাংলার জনপ্রিয় এ তারকা এবার এলেন পুরোদস্তুর লেখিকা হিসেবে। মিথিলা তার একমাত্র কন্যা আইরা তেহরীম খানকে নিয়ে শিশুদের জন্য ভ্রমণ কাহিনি বিষয়ক একটি বই লিখেছেন।

চলমান বইমেলায় আইরাকে নিয়ে লেখা মিথিলার এ বইটি প্রকাশিত হচ্ছে গুফি প্রকাশনী থেকে। মিথিলার সঙ্গে আলাপ করে জানা যায়, তিনি মোট পাঁচটি বইয়ের সিরিজের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন গুফি এর মূল প্রতিষ্ঠান লাইট অব হোপ লি. এর সাথে। সিরিজটির নাম ‘আইরা আর মায়ের অভিযান’।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

মিথিলা জানান, ওই সিরিজের প্রথম গল্প ‘তানজানিয়ার দ্বীপে’ এবারের বইমেলায় প্রকাশিত হচ্ছে। ৬ থেকে ১২ বছর বয়সী শিশুদের উপযোগী বই এটি। ২৭ মার্চ বিকেল পাঁচটায় বইমেলা প্রাঙ্গণে ৫৭১ নাম্বার স্টলে বইটির মোড়ক উন্মোচন করা হবে।

বিজ্ঞাপন

মিথিলা চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, আমি নিজে আইরাকে নিয়ে সেখানে থাকবো। আরও থাকবেন কথা সাহিত্যিক আনিসুল হক, প্রকাশক ওয়ালিউল্লাহ ভুঁইয়া, চিত্রশিল্পী মুহাইমেনুল রাকিব। সবাইকে সেদিন সেখানে আসার আমন্ত্রণ জানাই।

মিথিলার লেখা সিরিজের মূল উপজীব্য, সাত বছরের মেয়ে আইরার চোখে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ এবং সেখান থেকে বিভিন্ন বিষয় শেখা। কর্মজীবনে মিথিলা একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা। পেশার খাতিরে মিথিলাকে বিভিন্ন দেশের নানা প্রান্তে ছোটাছুটি করতে হয়। সেই সব ভ্রমণে মিথিলার সঙ্গী হন ছোট্ট আইরা।

মিথিলা জানান, গল্প লেখা হয় আইরার চোখের ভাষা দিয়ে। যেখান থেকে জানা যাবে ভয়কে জয় করার গল্প।

বইটির মূল চরিত্র মিথিলা ও তার মেয়ে আইরা। চরিত্রগুলো আঁকা হয়েছে তাদের মতো করে। হার্ডকাভারে ৩৬ পৃষ্ঠার বইটি পুরোপুরি রঙিন। শিশুরা বইটি মনোযোগ দিয়ে পড়লে কল্পনায় যেতে পারবে তানজানিয়ার দ্বীপে। শুরুতে থাকবে মিথিলা ও তার মেয়ের বইটি পড়ার ভিডিও। যারা বইটি কিনবেন, চাইলে কিউআর স্ক্যান করে সরাসরি ভিডিওটি দেখতে ও শুনতে পারবেন।