চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যে প্রাচীর সম্পর্কে জানে না কেউ

চীনের মহাপ্রাচীরের কথা আমরা কম-বেশি সবাই জানি। মহাপ্রাচীর ছাড়াও চীনের আরো একটি প্রাচীর আছে যা নানজিং শহরে অবস্থিত। ৩৫ কিলোমিটারেরও বেশি দীর্ঘ এই প্রাচীরটি ৬০০ বছরের পুরনো। প্রাচীরটি তৈরি করতে ব্যবহার করা হয়েছে ৩৫০ মিলিয়ন ইট। নব্বই বছর বয়সী জেই ঝিরু নানজিং প্রাচীর সংরক্ষণের কাজে নিয়োজিত আছেন। তিনি বলেন, এখানে অনেক যুদ্ধ সংঘটিত হয়েছিল কিন্তু কেউ প্রাচীরটির ক্ষতি করতে পারেনি। এমনকি যখন জাপানিরা আক্রমণ করেছিল তারা এটি ধ্বংস করতে সক্ষম হয়নি। বরং আমরা নিজেরাই এটিকে ধ্বংস করেছি। ১৯৫০-৬০ সালের দিকে অবহেলার কারণে প্রাচীরের কিছু অংশ খসে পড়েছিল। অনেকেই ভবন নির্মাণের জন্য সেই খসে পড়া ইট ব্যবহার করেছিল। এছাড়াও নানজিংয়ের অন্য রাজ্যগুলোর সাথে যোগাযোগ এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য রাস্তা তৈরি করতে এর কিছু অংশ ভাঙ্গা হয়েছিল। ঝিরু বলেন, আমি দেখেছি অনেক কৃষককে সবজি বিক্রির জন্য প্রাচীরের ইটগুলো টেবিল হিসেবে ব্যবহার করতে। এমনকি ৬০০ বছর পুরনো ইটগুলো ব্যবহার হচ্ছে বসার টুল হিসেবে। ২০১৬ সালে স্থানীয় সরকার একটি প্রচারণা চালায়। যেখানে স্থানীয় বাসিন্দাদের কোনরকম জরিমানা ছাড়াই প্রাচীরেরে ইটগুলো ফেরত দিতে বলা হয়। তৎকালীন সরকার প্রায় ৮০ হাজার ইট পেয়েছিল। বর্তমানে প্রচীরের নিচে বিশাল গুদামে সেগুলো সংরক্ষিত রয়েছে। যেন পরবর্তীতে প্রাচীরের ক্ষতিগ্রস্ত অংশগুলি মেরামতের জন্য ব্যবহার করা যায়।