চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যে কারণে পদক ফিরিয়েছিলেন বলিউডের শিল্পীরা

কাজের স্বীকৃতি হিসেবে পদক পেতে কে না ভালোবাসে? কিন্তু সনু নিগাম, লতা মঙ্গেশকর, কুমার শানু সহ বেশ কয়েকজন তারকা পদক পেয়েও ফিরিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু কেন? জেনে নিন পদক ফিরিয়ে দেয়ার পেছনের কারণগুলো:

লতা মঙ্গেশকর: দাদা সাহেব ফালকে, ভারত রত্ন, পদ্ম বিভূষণ, পদ্ম ভূষণ, তিনটি জাতীয় পুরস্কার, পাঁচটি ফিল্ম ফেয়ার জিতেছেন লতা। কিন্তু জীবনের প্রথম ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কার ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। বস্ত্রহীন নারীর আদলে গড়া, তাই পদক গ্রহণ করেননি তিনি। পরে নকশা বদল করে তাকে পদকটি দেয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সালিম খান: চিত্রনাট্যকার সালিম খান জাভেদ আখতারের সঙ্গে কাজ করে বলিউডকে উপহার দিয়েছেন শোলে, সীতা অর গীতা, জাঞ্জির, দিওয়ার এর মতো অসংখ্য জনপ্রিয় সিনেমা। তিনি ২০১৫ সালে পদ্মশ্রী পুরস্কার ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। কারণ, সালিম খানের মনে হয়েছিল তার কাজ আরও বেশি সম্মান পাওয়ার যোগ্য।

বিজ্ঞাপন

রিনা রায়: সত্তরের দশক থেকে আশির দশকের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত বলিউডে জনপ্রিয়তার সাথে কাজ করেছেন রিনা রায়। তিনি ১৯৭৭ সালে ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কার ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। ‘সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী’ হিসেবে পাওয়া সেই পুরস্কার তিনি গ্রহণ করেননি। তার মতে তিনি মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন, পার্শ্ব চরিত্রে নয়।

কুমার শানু: বলিউড অসংখ্য জনপ্রিয় গানের গায়ক কুমার শানু। পাঁচবার পুরস্কার জেতার পর তিনি জানিয়ে দিয়েছেন ফিল্ম ফেয়ার আর গ্রহণ করবেন না। নতুন শিল্পীদের সুযোগ করে দেয়ার জন্যই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

সনু নিগাম: ১৯৯০ সালে সনু নিগাম ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কার গ্রহণ করেননি। ‘সান্দেসে আতে হ্যায়’ গান এর জন্য এই পুরস্কার জিতেছিলেন তিনি। গানটি সনু এবং রূপ কুমার রাথোর দুজনে মিলে গেয়েছিলেন। সনুর মনে হয়েছিল, দুজন গায়কেরই সমান সম্মান পাওয়া উচিত। তাই পুরস্কার ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। কইমই