চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যেসব প্রেক্ষাগৃহে দেখা যাবে প্রসূনের ‘ঢাকা ড্রিম’

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) রাজধানীসহ দেশের মোট ৬টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেলো প্রসূন রহমানের স্বাধীনধারার চলচ্চিত্র ‘ঢাকা ড্রিম’। 

আভ্যন্তরীন বাস্তুচ্যুতি, জীবিকার প্রয়োজন ও উন্নত জীবনের আশায় ঢাকামুখি প্রান্তিক মানুষের স্বপ্ন ও স্বপ্নভঙ্গের গল্প নিয়ে নির্মিত ‘ঢাকা ড্রিম’। সিনেমাটি রাজধানীর প্রধান প্রধান সিনেপ্লেক্স সহ মুক্তি পেয়েছে নারায়ণগঞ্জ ও কিশোরগঞ্জের দুটি প্রেক্ষাগৃহে।

প্রসূন রহমান চ্যানেল আই অনলাইন জানিয়েছেন, রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্স এর বসুন্ধরা ও সনি সিনেপ্লেক্স, যমুনা ব্লকবাস্টার ও শ্যামলীসহ নারায়ণগঞ্জের সিনেস্কোপ  এবং কিশোরগঞ্জ কুলিয়াচরের রাজ সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে ‘ঢাকা ড্রিম’।

বিজ্ঞাপন

এরআগে সিনেমাটি নিয়ে নির্মাতা জানান, ‘উন্নত জীবনের সন্ধানে অসংখ্য কারণে আমাদের অনেকের ঢাকা শহরে আসতে হয়। এরমধ্য থেকে আমরা দশটি উল্লেখযোগ্য কারণ ‘ঢাকা ড্রিম’ সিনেমায় দেখানোর চেষ্টা করেছি।’

বিভিন্ন জেলা থেকে হাজার হাজার মানুষ ঢাকা শহরে আসছেন, এবং প্রত্যেকেই কোনো না কোনো স্বপ্ন নিয়ে এই শহরে এসেছেন। সেইসব স্বপ্নগুলোই ক্যামেরার চোখ দিয়ে দেখবার চেষ্টা আছে এই সিনেমায়। এমনটাই জানালেন নির্মাতা।

যৌনকর্মী, ছাত্র, স্বল্পশিক্ষিত বেকার, অন্ধ ভিক্ষুক, স্বামী পরিত্যক্তা নারী, খুনি, রিকশাচালক, নরসুন্দর, রিয়েলিটি শোর প্রতিযোগী এবং নদীভাঙনে গৃহহারা পরিবারের ছায়াদের গল্প নিয়ে নির্মিত ‘ঢাকা ড্রিম’। যারা প্রত্যেকেই দেখছে গ্রাম থেকে জাদুর শহর ঢাকায় আসার স্বপ্ন- যার যার অবস্থান থেকে।

ছবিতে আয়নাল ফকির নামের রহস্যময় এক অন্ধ ভিক্ষুকের চরিত্রে অভিনয় করছেন ফজলুর রহমান বাবু। এছাড়াও এতে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন মনিরা মিঠু, শাহাদাত হোসেন, জয়ীতা মহলানবীশ, পূর্ণিমা বৃষ্টি, আবদুল্লাহ রানা, হিন্দোল রায়, শাহরিয়ার সজীব, নাইরুজ সিফাত, ইকবাল হোসেন, সুজাত শিমুল, আরশ খান, সায়মা নীরা‌ এবং প্রয়াত এসএম মহসীন সহ আরো অনেকে। চলচ্চিত্রটির সংগীতায়োজনে রয়েছেন বরেন্য শিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ।

বিজ্ঞাপন