চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যেকোনো অবস্থায় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সেবা অব্যাহত রাখা হবে: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সংক্রান্ত সেবা যে কোনো অবস্থাতেই অব্যাহত রাখা হবে। সেবা নিয়ে সরকার সর্বদা গ্রাহকদের সাথেই থাকবে। যে কোনো সময় যে কোনো সমস্যা নিয়ে ফোকাল পয়েন্ট কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলা যাবে।

মঙ্গলবার মন্ত্রণালয়ে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ, গ্যাস ও জ্বালানি সরবরাহে করণীয় নিয়ে নির্দেশনা প্রদানকালে এসব কথা বলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

প্রতিমন্ত্রী বলেন, নিজেদের সুরক্ষা নিশ্চিত করে অফিস পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। বিদ্যমান কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র দলে-উপদলে বিভক্ত করে রোস্টারের ভিত্তিতে দায়িত্ব দেয়া যেতে পারে। সব সময় বিকল্প দল প্রস্তুত রাখতে হবে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

তিনি প্রত্যেক অফিসেই প্রয়োজনে ‘আইসোলেশন’ রাখার ব্যবস্থা গ্রহণে নির্দেশ দেন। এ সময় তিনি করপোরেট সোশাল রেসপনসিবিলিটি (সিএসআর) ফান্ড হতে করোনা সংক্রান্ত সহযোগিতা বৃদ্ধির জন্য ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কোম্পানিগুলোকে নির্দেশ দেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের ফোকাল পয়েন্ট কর্মকর্তা অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) মোঃ মোস্তফা কামাল (ফোন নং-০১৭১১-৯৪২০২২) ও উপসচিব (বাজেট) মোছাম্মাৎ ফারহানা রহমান (ফোন নং-০১৭১২-৮৭২০৭৩) গ্যাস ও জ্বালানি সংক্রান্ত সহযোগিতা ও তথ্য এই ফোকাল পয়েন্ট কর্মকর্তারা দিবেন।

বিদ্যুৎ বিভাগের ফোকাল পয়েন্ট কর্মকর্তা হিসেবে থাকছেন অতিরিক্ত সচিব (সমন্বয়) এ কে এম হুমায়ূন কবীর (ফোন নং-০১৭৭৭-১৯০৯১৭) ও যুগ্নসচিব (প্রশাসন) রেজওয়ানুর রহমান (ফোন নং-০১৭১১-৯০৫৮১৯)।

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সরকার ইতোমধ্যে দেশের সকল সরকারি-বেসরকারি দপ্তর ও সকল ধরনের গণপরিবহন ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পযন্ত বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। আগামী ৯ এপ্রিল পযন্ত বন্ধ থাকবে স্কুল-কলেজ সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে এই সময় নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য দ্রব্যের দোকান, ফার্মাসি, হাসপাতাল ইত্যাদি চালু থাকবে।