চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

যু্ক্তরাষ্ট্রে একদিনেই আক্রান্ত আট লাখের বেশি

করোনা

Nagod
Bkash July

করোনার অতিসংক্রামক ধরন ডেলটা ও অমিক্রন ছড়িয়ে পড়ায় বিশ্বজুড়ে সংক্রমণ লাফিয়ে বাড়ছে। এই ধারাবাহিকতায় করোনার দৈনিক সংক্রমণ ৩৪ লাখের কাছাকাছিতে উন্নীত হয়েছে। মহামারি শুরুর পর থেকে বিশ্বে এক দিনে এত রোগী শনাক্ত হয়নি। যুক্তরাষ্ট্রেই একদিনে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে আট লাখেরও বেশি। যুক্তরাজ্যে প্রায় এক লাখ।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বাড়ছে হু হু করে। ভারতে একদিনে আক্রান্ত হয়েছে আড়াই লাখেরও বেশি। এর মধ্যে মকরসংক্রান্তির উৎসবে সমবেত হয়েছে লাখো মানুষ। ফলশ্রুতিতে আক্রান্তের সংখ্যা আরও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছে বিশেষজ্ঞরা। এদিকে করোনার নতুন দুটি চিকিৎসাপদ্ধতির অনুমোদন দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

Sarkas

ভারতে শুক্রবার এক দিনে চলতি বছরের সর্বোচ্চ দুই লাখ ৬৪ হাজরের বেশি মানুষ সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছে। এরপরও দেশটিতে বন্ধ নেই ধর্মীয় জনসমাগম। মকরসংক্রান্তি উৎসব উপলক্ষে উত্তর প্রদেশের প্রয়াগরাজে সমবেত হয়েছে লাখো মানুষ। ফলে ভারতে সংক্রমণ আরও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছে বিশেষজ্ঞরা।

প্রদেশটির মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ পুণ্যার্থীদের করোনার নিয়মাবলি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন। বলা হয়েছে, টিকার সনদ না থাকলে কেউ মেলায় অংশ নিতে পারবেন না। করোনার পরীক্ষা করিয়ে তবেই যেতে হবে। ভিড় ঠেকাতে পাঁচ হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে করোনাভাইরাসের আক্রান্তদের জন্য নতুন দুটি চিকিৎসাপদ্ধতির অনুমোদন দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। গুরুতর অসুস্থতা ও মৃত্যু প্রতিরোধ করতে টিকার পাশাপাশি নতুন চিকিৎসাপদ্ধতি ব্যবহার করা যাবে। ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নালে ডব্লিওএইচও’র বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, করোনায় গুরুতর অসুস্থ রোগীদের কর্টিকসটারয়েডস নামের একটি ওষুধের সঙ্গে আর্থ্রাইটিসের ওষুধ বারিসিটিনিব প্রয়োগ করলে ভেন্টিলেশনে নেয়া ও মৃত্যুর ঝুঁকি কমে।

করোনায় আক্রান্ত হলে মারাত্মক অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি দ্বিগুণেরও বেশি বাড়িয়ে তোলে এমন একটি জিন খুঁজে পেয়েছেন পোল্যান্ডের বিজ্ঞানীরা। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে কারা সবচেয়ে বেশি ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন, তা আগে থেকে বুঝতে এই গবেষণা নতুন পথ দেখাবে বলে তারা আশা করছেন। গবেষণা প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা অধ্যাপক মার্সিন মনিউসকো বলেন, পোল্যান্ডের জনসংখ্যার প্রায় ১৪ শতাংশের মধ্যে এই জিন রয়েছে,যা পুরো ইউরোপে ৮ থেকে ৯ শতাংশ এবং ভারতে রয়েছে ২৭ শতাংশের মধ্যে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনার অমিক্রনে সংক্রমিত ব্যক্তিদের হাসপাতালে যাওয়ার হার বাড়ছে। ডব্লিওএইচও আশঙ্কা করছে, আগামী মার্চ মাসের মধ্যে ইউরোপের অর্ধেক করোনায় সংক্রমিত হবে। এমন পরিস্থিতিতে যাঁরা বয়স্ক, রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কম কিংবা ডায়াবেটিসের মতো কোনো রোগে ভুগছেন, তাঁদের করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে যাওয়ার ঝুঁকি কমাতে বিশেষজ্ঞরা এই পদ্ধতি সুপারিশ করে।

BSH
Bellow Post-Green View