চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তির দিনেই ঢাকার দর্শক দেখবে ‘আনচার্টেড’

প্রবাদ আছে, ‘শেষ ভালো যার সব ভালো তার।’ সে হিসেবে গত বছরটা ছিলো টম হল্যান্ডের। করোনা সংকটের মধ্যেও ‘স্পাইডার ম্যান: নো ওয়ে হোম’ দিয়ে বছরের শেষটা দারুণ সাফল্যে রাঙিয়েছেন তিনি। এবার নতুন বছরেই নতুন চমক নিয়ে আসছেন তিনি।

নতুন বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পেতে যাচ্ছে টম হল্যান্ড অভিনীত হলিউডের কাঙ্খিত একটি ছবি ‘আনচার্টেড’। একই দিনে বাংলাদেশের স্টার সিনেপ্লেক্সে মুক্তি পাবে ছবিটি।

Reneta June

অ্যাকশন অ্যাডভেঞ্চারধর্মী এ ছবির পরিচালক রুবেন ফ্লেশার। সর্বকালের সর্বাধিক বিক্রিত এবং প্রশংসিত ভিডিও গেম সিরিজগুলির একটির উপর ভিত্তি করে সিনেমাটি নির্মিত। এতে অভিনয় করেছেন টম হল্যান্ড, মার্ক ওয়াহলবার্গ, আ্যান্টোনিও ব্যান্ডেরাস, সোফিয়া আলী, তাতি গ্যাব্রিয়েলসহ আরও অনেকে।

বিজ্ঞাপন

সনি পিকচার্স-এর ১২০ মিলিয়ন ডলার বাজেটের এই ছবিটি ঘিরে এরইমধ্যে আলোচনা শুরু হয়েছে।

সম্প্রতি এই ছবি নিয়ে এক সাক্ষাৎকারে টম হল্যান্ড রসিকতা করে বলেন, ‘একজন অভিনেতা হিসেবে যে ধরনের চরিত্রে নিজেকে দেখতে চেয়েছিলাম সেটা পূর্ণ হয়েছে। এই দিনটির জন্যই এতদিন অপেক্ষা করেছি। ক্যারিয়ারে এতদিন পর মনে হচ্ছে এই সিনেমাটিতে অভিনয়ের জন্য আমাকে অস্কার দেওয়া উচিত। আশা করছি আমার এই স্বপ্নটি এবার পূরণ হবে।’

‘আনচার্টেড’ নামের এই ছবিটি নির্মিত হয়েছে ভিডিও গেম সিরিজ অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে এই ছবি। ছবিতে মার্ক ওয়াহলবার্গ, অ্যান্টোনিও ব্যান্ডেরাসের মত ডাকসাইটে অভিনেতারা থাকলেও মূল আকর্ষণ টম হল্যান্ড। তাকে ঘিরেই ছবিটির প্রতি দর্শকদের আগ্রহ তৈরি হয়েছে। ২০০৮ সালে প্রথম এ ছবি নির্মাণের পরিকল্পনা করা হয়। কিন্তু নানা কারণে পিছিয়ে যায় কাজ। শেষ পর্যন্ত ২০২০ সালে এসে এটি পূর্ণতা পায় টম হল্যান্ডের হাত ধরে।

জনপ্রিয় এই অভিনেতা যুক্ত হওয়ার পর থেকেই ছবিটি প্রাণ পায় এবং আলোচনা সৃষ্টি করে। তারপরও এ কৃতিত্বের অংশীদার হিসেবে পরিচালক রুবেন ফ্লেশার এবং সনি পিকচার্সের কথা না বললেই নয়। জার্মানির বার্লিন এবং স্পেনের বিভিন্ন লোকেশনে ছবির শুটিং হয়েছে। এ বছরের ৭ ফেব্রুয়ারি স্পেনের বার্সেলোনায় প্রথম প্রিমিয়ার হয় এবং ১১ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাজ্যে মুক্তি পায়।