চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যুক্তরাষ্ট্রে পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত

যথাযোগ্য মর্যাদায় নিউইয়র্কসহ যুক্তরাষ্ট্রে উদযাপিত হয়েছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। দেশটির দুই হাজার মসজিদ ও বিভিন্ন মাঠ এবং খোলা জায়গায় লাখ লাখ মানুষের অংগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয়েছে ঈদ জামাত। নিউইয়র্কের সর্ববৃহৎ ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে জ্যামাইকার থমাস এডিসন স্কুল মাঠে। এছাড়া নগরীর প্রতিটি মসজিদে ছিল ৩ থেকে ৪টি জামাত। ঈদ উপলক্ষে নিউইয়র্কে বাংলাদেশী কমিউনিটিতে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।

করোনামুক্ত নিউইয়র্কে ঈদের দিন সকাল থেকে ঈদ জামাতে অংশ নিতে দল বেঁধে মসজিদ অথবা মাঠের দিকে ছুটতে থাকেন মুসল্লিরা। চোখে মুখে প্রশান্তির ছাপ। কারণ গতবছর এই সময়ে তারা ছিলেন ঘরবন্দি। পবিত্র রমজানের কোন ইবাদত মুসল্লিরা ঘরের বাইরে আদায় করতে পারেননি।

বিজ্ঞাপন

নিউইয়র্কের সর্ববৃহৎ জামাতটি অনুষ্ঠিত হয় জ্যামাইকার থমাস এডিসন স্কুল মাঠে। আয়োজন করে জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার। এতে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের সঙ্গে যোগ দেন যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের সদস্যসহ মুলধারার রাজনীতিদরা।

নিউইয়র্কের মুসলিম সম্প্রদায়কে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে কংগ্রেসওম্যান গ্রেসমেং বলেন, আমাদের করোনা পরিস্থিতির অনেক উন্নতি হয়েছে। তবে আমাদেরকে এখনও সিডিসি গাইডলাইন মেনে চলতে হবে। যারা এখনও ভ্যাকসিন নেননি তাদেরকে দ্রুততার সঙ্গে ভ্যাকসিন নেওয়ার আহবান জানান তিনি।

এ সময় কুইন্স ব্যুরো প্রেসিডেন্ট ডোনাভান রিচার্ডস বলেন, নিউইয়র্কে দিনে দিনে মুসলিম জনগোষ্ঠি সকল ক্ষেত্রে তাদের দক্ষতা, গ্রহণযোগ্যতা প্রমাণ করেছে। তারা এই সিটির অবিচ্ছেদ্য অংশে পরিণত হয়েছে। তিনি পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে মুসলিম সম্প্রদায়কে তাঁর শুভেচ্ছা জানান।

নির্ধারিত সময়ের আগেই ধর্মপ্রাণ মুসল্লিতে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় থমাস এডিসন স্কুল মাঠ।

ঈদ জামাতে ইমামতি করেন জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের খতিব মাওলানা আবু জাফর বেগ। খুৎরা পাঠ করেন মাওলানা শামসে আলী। মোনাজাতের আগে মাওলানা জাফর বেগ বলেন, ফিলিস্তিনি মুসলমানদের উপর ইসরাইল অন্যায়ভাবে আক্রমণ করেছে। আমরা এই জুলুমের তীব্র নিন্দা জানাই। তিনি কিছুটা আবেগপ্রবণ হয়ে বলেন, আমাদেরকে প্রতিবাদ করা শিখতে হবে।

মোনাজাত শুরু হলে প্রায় ১৫ হাজার মুসল্লি মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে ক্ষমা চেয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। মাওলানা জাফর বেগের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত দোয়ায় মুসল্লিদের আমিন আমিন ধ্বণিতে এক আবেগঘণ পরিবেশের তৈরি হয় স্কুল মাঠে। মাওলানা জাফর বেগ, দীর্ঘ এক মাসের সিয়াম সাধনা ও অন্যান্য ইবাদতে কোন প্রকার ভুল ত্রুটির জন্য মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

থমাস এডিসন স্কুল থেকে আরও একটু দূরে সুসান বি এ্যান্থনী স্কুল মাঠেও ঈদের অন্যতম বড় জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

তাছাড়া নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটস, ব্রুকলিন, ব্রন্কস ও লংআইল্যান্ডের বিভিন্ন মসজিদ ও খোলা জায়গায় ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

ঈদ উপলক্ষে নিউইয়র্কের প্রতিটি বাঙ্গালী পরিবারে ছিল বাহারী খাবারের আয়োজন। এ উপলক্ষে নগরীর প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই ছুটি ছিল।

বিজ্ঞাপন