চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ম্যারাডোনার প্রতি শ্রদ্ধা না জানানোর কারণে নারী ফুটবলারকে হত্যার হুমকি

ডিয়েগো ম্যারাডোনার মৃত্যুতে বিশ্বফুটবল আজ শোকে কাতর। যে যার মতো আর্জেন্টাইন কিংবদন্তির প্রতি নিজেদের শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন। তবে পাউলা ডাপিনা তার ব্যতিক্রম, ১৯৮৬ বিশ্বকাপের মহানায়কের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে কোনো ইচ্ছেই ছিলো না এই নারী ফুটবলারের, যে কারণে তাকে দেওয়া হয়েছে হত্যার হুমকি!

স্পেনের তৃতীয় বিভাগের অপেশাদার দল ভায়াহেস ইন্টাররিয়াসের মহিলা দলের ফুটবলার পাউলা। শনিবার ডেপার্টিভো লা করুনার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচের আগে সেন্ট্রাল সার্কেলে এক মিনিট নীরবতা পালনের মাধ্যমে ম্যারাডোনার প্রতি শ্রদ্ধা জানান দুই দলের ফুটবলাররা, কেবল ব্যতিক্রম ছিলেন পাউলা। সরাসরি অস্বীকৃতিই জানান পেশায় শিক্ষক এই নারী। শ্রদ্ধা নিবেদন জানানোর বদলে এক মিনিট উল্টো হয়ে ঘুরে বসেছিলেন তিনি!

বিজ্ঞাপন

‘ম্যারাডোনা একজন নারী নির্যাতনকারী, তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনকে আমার কাছে ভণ্ডামি বলে মনে হয়েছে।’

২০১৪ সালে স্ত্রী অলিভিয়াকে নির্যাতন করায় মামলার মুখে পড়েছিলেন ম্যারাডোনা। রাগের মাথায় স্ত্রীর দিকে ফোন ছুঁড়ে মারার বিষয়টি নিজেই স্বীকার করেছিলেন গত বুধবার হার্ট অ্যাটাকে মারা যাওয়া সাবেক আর্জেন্টাইন অধিনায়ক।

বিজ্ঞাপন

সেই বিষয়টি মনে রেখেই ম্যারাডোনার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে রাজী হননি পাউলা। না করেই পড়েছেন বিপদে। তার দিকে একের পর এক হুমকি ছুঁড়ে দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

‘কেবল আমিই না, ফেসবুকে আমার সতীর্থদেরকেও হুমকি দেওয়া হচ্ছে। আমাদেরকে হত্যার ভয় দেখানো হয়েছে, বলা হয়েছে আমার বাসার ঠিকানা বের করে আমার পা ভেঙে দেওয়া হবে!’

তবে তিনি ছাড়া বাকি নারী ফুটবলাররা কেন ম্যারাডোনাকে শ্রদ্ধা জানাতে এগিয়ে এলেন তাতেও অবাক হচ্ছেন পাউলা, ‘ম্যারাডোনার প্রতি এক মিনিট শ্রদ্ধা জানানো আমার নৈতিকতার বাইরে, আমি তা পারি না।’

‘ফুটবলীয় দিক থেকে ম্যারাডোনার স্কিল, মান ছিলো অসাধারণ। তবে মানুষ হিসেবে এমন কাউকে জীবনে মোটেও আশা করা চলে না।’