চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মোহামেডানকে গুঁড়িয়ে আবাহনীর মধুর প্রতিশোধ

মুখোমুখি প্রথম দেখায় হারলেও সুপার লিগের প্রথম দ্বৈরথে মোহামেডানকে ৬০ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে মধুর প্রতিশোধ নিয়েছে আবাহনী। মিরপুরে রাতের ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দলের লড়াই একদমই জমেনি। খেলা হয়েছে একপেশে।

আবাহনীর রানপাহাড়ে চাপা পড়ে মোহামেডান। ১৯৪ রানের বড় লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে সাদা-কালো জার্সিধারীদের ইনিংস থামে দেড়শর আগে। লোয়ারঅর্ডারে আবু হায়দার রনির ফিফটি কেবল হারের ব্যবধানই কিছুটা কমিয়েছে মোহামেডানের।

বিজ্ঞাপন

মাহমুদুল হাসান ৩৭ ও ইরফান শুক্কুর করেন ২৭ রান। আবাহনীর মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত নেন দুটি করে উইকেট। আরাফাত সানি ও তানজিম হাসান সাকিব একটি করে উইকেট নিয়েছেন।

৪২ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে মোহামেডান। দলীয় সংগ্রহ তিন অঙ্কে যাবে কিনা; সেটি নিয়েই ছিল সংশয়। শেষ পর্যন্ত আবু হায়দারের ৫৩ রানের অপরাজিত ইনিংসে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৩৩-এ পৌঁছায় মোহামেডানের স্কোর।

শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় শুরু হওয়া ম্যাচে আবাহনী ওপেনার মুনিম শাহরিয়ার ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন শুরুতে। মাঝামাঝি সময়ে দলের সংগ্রহ বড় করতে থাকেন মুশফিকুর রহিম।

দুজনের দারুণ ব্যাটিংয়ে মোহামেডানের বিপক্ষে দুইশ’র কাছাকাছি পুঁজি পায় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টুয়েন্টির দ্বৈরথে ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৯৩ রান তোলে আবাহনী। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টুয়েন্টিতে এটিই সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। আগের সর্বোচ্চ ছিল আবাহনীরই (১৮৩/৫)।

আকাশী-নীলদের ওপেনার মুনিম ২৭ বলে ৪৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে যান। মুশফিক ৩২ বলে ৫৭ রানে অপরাজিত থাকেন।

বিজ্ঞাপন