চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মোদির দলে যোগ দিলেন মিঠুন চক্রবর্তী

‘মারব এখানে, লাশ পড়বে শ্মশানে’ সংলাপটি শুনলেই সবার প্রথমে যার নাম মাথায় আসে তিনি হলেন জনপ্রিয় বাঙালি অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। ২০০৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত মিঠুন চক্রবর্তী অভিনীত ‘এমএলএ ফাটাকেষ্ট’ ছবিটির এই সংলাপটি যেন বাস্তব জীবনেও অভিনেতার মুখের বলি হতে যাচ্ছে। কেননা, রবিবার (৭ মার্চ) পশ্চিমবঙ্গের জনপ্রিয় অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।

এদিন কলকাতার বিখ্যাত ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির সমাবেশের কিছুক্ষণ আগে মিঠুন চক্রবর্তী বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। মূলত মার্চ ও এপ্রিলে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যসভার নির্বাচনকে সামনে রেখে এমন পদক্ষেপ নিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

উক্ত সভার বক্তৃতায় মিঠুন বলেন, আমি একজন গর্বিত বাঙালি। আমি জানি আমার ডায়লগ আপনারা পছন্দ করেন। এরপর তিনি তার নিজের কিছু এক লাইনের বিখ্যাত সংলাপ উচ্চারণ করেন। যেখানে তিনি ‘এমএলএ ফাটাকেষ্ট’ থেকে শোনান, মারব এখানে, লাশ পড়বে শ্মশানে। এরপর তিনি বলেন, শুনুন আমার নতুন সংলাপ। আমি জলঢোড়াও নই, বেলেঘোড়াও নই। আমি জাত গোখরা। আমার এক ছোবলেই আপনি দেয়ালে ঝুলন্ত ছবি হয়ে যাবেন। এসময় শ্রোতারা বন্য উল্লাসে মেতে ওঠে।

বিজ্ঞাপন

কলকাতার বিখ্যাত ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে বিশাল জমায়েতে ভাষণ দিয়েছেন মোদি। গত সপ্তাহে রাজ্যসভার ভোটের তারিখ নির্ধারণের পর পশ্চিমবঙ্গে এটিই তার প্রথম সমাবেশ। সমাবেশ স্থলে বলিউডের এই জনপ্রিয় অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী আগেভাগেই উপস্থিত হয়েছেন। সবার নজর এখন ফাটাকেষ্ট খ্যাত এই অভিনেতার দিকে।

এর আগে মিঠুন চক্রবর্তীর সঙ্গে দেখা করেছেন ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির জাতীয় মহাসচিব কৈলাশ বিজয়ভার্জিয়া।কলকাতায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে নির্বাচনী প্রচারে তিনি অংশ নেবেন কিনা তা নিয়ে জল্পনা-কল্পনার মধ্যেই শনিবার বেলগাছিয়ায় তাদের মধ্যে এই বৈঠক হয়েছে।

দুই বছর মমতা ব্যানার্জির তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভা সদস্য ছিলেন মিঠুন চক্রবর্তী। অত:পর দায়িত্বপালন শেষে তিনি পদত্যাগ করেন।

গত ১৬ ফেব্রুয়ারি মিঠুন চক্রবর্তীর মুম্বাইয়ের বাংলোতে গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করেন আরএসএস প্রধান মোহন ভগবত। এরপরেই তার আনগত্য পরিবর্তন নিয়ে রাজনৈতিক মহলে নানা বক্তব্য ছড়িয়ে পড়েছে।

বিজ্ঞাপন