চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মেসি বার্সেলোনা ছাড়ছেন, কোথায় যাচ্ছেন?

গুঞ্জনটা আর গুঞ্জন নেই। এটা এখন প্রকাশ্য যে, লিওনেল মেসি বার্সেলোনা ছাড়ার ইচ্ছার কথা জানিয়ে দিয়েছেন। ফ্যাক্স বার্তায় আর্জেন্টাইন মহাতারকা ক্লাবকে লিখেছেন, আসছে মৌসুম শুরুর আগেই ন্যু ক্যাম্প ছাড়তে চান! মেসির চিঠির কথা স্বীকার করেছে বার্সাও।

৩৩ বছর বয়সী মেসি মঙ্গলবার ফ্যাক্স বার্তায় বার্সা কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন, তার চুক্তির একটি বিশেষ শর্ত কার্যকর করে দলবদল করতে চান তিনি। কাতালানদের সাথে তার চুক্তিতে আছে, যেকোনো মৌসুম শুরুর আগে ১০ জুনের মধ্যে ক্লাব ছাড়তে চাওয়ার ইচ্ছার কথা জানিয়ে দিলে সেটি বিনা ট্রান্সফার ফিতে কার্যকর করতে হবে বার্সাকে।

বিজ্ঞাপন

বার্সায় মেসির বর্তমান চুক্তি অবশ্য ২০২০-২১ মৌসুম পর্যন্ত। নামের পাশে বাই আউট ক্লজ আছে ৭০০ মিলিয়ন তথা ৭০ কোটি ইউরো। এখন যেহেতু ১০ জুনও পার হয়ে গেছে, বার্সা তাই আশা করছে চুক্তির শর্তটি দিয়ে মেসিকে আটকাতে পারবে তারা।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

কিন্তু চুক্তির শর্তটি নিয়ে মেসির দিক থেকেও নাকি যুক্তি এসেছে। করোনাভাইরাস মহামারীর বিশেষ এ মৌমুমে দলবদল থেকে শুরু করে নতুন মৌসুম মাঠে গড়ানো পর্যন্ত সবই বিলম্বিত। তাই মেসির চুক্তির শর্তও কার্যকারিতার বাড়তি সময় পাবে, এবং সেটা ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত।

মেসি ক্লাব ছাড়ার ব্যাপারে একটা সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন, মঙ্গলবার দিনভর এমন খবরের মাঝে আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম ‘টিওয়াইসি স্পোর্টস’ জানায়, ফ্যাক্সের মাধ্যমে বার্সা ছাড়তে চাওয়ার কথা জানিয়েছেন মেসি। তারপর থেকেই চলছে মেসি-বার্সা চুক্তির চুলচেরা বিশ্লেষণ।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টারে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮-২ গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার পর শুরু, মেসির চলে যাওয়ার গুঞ্জন থামাতে পরেননি নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যানও। এখন প্রশ্ন উঠছে মেসি যখন চলে যাওয়ার কথা নিজেই বলেছেন, নিশ্চয় কোথাও গন্তব্য ঠিক করেই বলেছেন, সেটি কোথায়?

ইউরোপের কিছু সংবাদ মাধ্যম বলছে, তিন দিন আগে সাবেক গুরু পেপ গার্দিওলাকে ফোন করেছিলেন মেসি, ম্যানচেস্টার সিটি তাকে নিতে পারবে কিনা সেটি প্রশ্ন রেখেছেন। আর ইতালির ইন্টার মিলান তো মেসিকে কেনার ছক কষছে গত কয়েকমাস ধরেই। পিএসজি থেকে শুরু করে আরও কয়েকটি ক্লাবও তাকে পাওয়ার মিরাকল ঘটাতে মনোবাসনার কথা জানিয়ে রেখেছে।