চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মেসিদের বেতন কেটে নেয়ার ঘোষণা বার্সার

কোনো জল্পনা-কল্পনা নয়, অবশেষে সত্যিই খেলোয়াড়দের বেতন কেটে রাখার ঘোষণা দিয়েছে ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনা। করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট আর্থিক ক্ষতি পুষিয়ে উঠতেই কঠিন এই সিদ্ধান্ত নিলো স্প্যানিশ ক্লাবটি।

করোনা ভাইরাসের কারণে থেমে গেছে স্প্যানিশ লা লিগাসহ বিশ্বের প্রায় সব খেলাধুলাই। চলতি সপ্তাহের শুরুতে উয়েফাও জানিয়েছে যে, পিছিয়ে যাচ্ছে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালও। থমকে থাকা কিংবা পিছিয়ে যাওয়া এসব খেলা আবার কবে শুরু হবে তা কেউ জানে না।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

খেলা বন্ধ থাকায় প্রতি সপ্তাহে কোটি কোটি ইউরো হারাচ্ছে বার্সা। টেলিভিশনসত্ত্ব ও ম্যাচ জয়ের প্রাইজমানি হিসেবে যে টাকাগুলো পাওয়া যেত লা লিগার কাছ থেকে সেটাও এখন বন্ধ। একই সময়ে ম্যাচের টিকিট বিক্রি করেও আয় হচ্ছে না। করোনার কারণে বন্ধ হয়ে গেছে বার্সা জাদুঘর। সেই জাদুঘর দেখতে প্রতিদিন শত শত দর্শক আসতেন ন্যু ক্যাম্পে। এখন সে খাত থেকে কামাই-রোজগার নেই ক্লাবের।

বিভিন্ন দিক থেকে আর্থিক ক্ষতি সামলাতে না পেরে বিশেষ এক স্প্যানিশ শ্রম আইন ব্যবহার করেছে বার্সা। ইআরটিই বা অস্থায়ী কর্মশক্তি সামঞ্জস্য পরিকল্পনা নামের এই আইনে বলা আছে ক্রান্তিকালে চাইলে যেকোনো প্রতিষ্ঠান একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত কর্মীদের বেতন কাটছাট করতে পারবে। এই আইনেই বলা আছে প্রথম ১৮০ দিন পর্যন্ত ৭০ শতাংশ হারে বেতন পাবেন কর্মীরা। ২০০৮ সালে অর্থনৈতিক মন্দার সময়ে এই আইন ব্যবহার করেছিলো স্পেন।

মঙ্গলবার বোর্ড সভার পর এক বিবৃতিতে ইআরটিই নিয়ে বার্সা জানিয়েছে কেবল খেলোয়াড় কিংবা স্টাফই নন, ক্লাবের সবরকম কর্মীদেরই বেতন কেটে নেয়া হবে ৩০ শতাংশ হারে। বর্তমান উদ্ভুত পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার মানিয়ে নেয়ার আহবান জানানো হয়েছে এই কর্মীদের।