চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মৃত্যু ও শনাক্তে সবার শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র

করোনাভাইরাস

যুক্তরাষ্ট্রে আবার দ্রুততার সাথে বাড়ছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা। শুধু শেষ ২৪ ঘণ্টাতেই সেখানে শনাক্ত হয়েছে ১ লাখ ৮৪ হাজার ৪২০ জন। এই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৪৮০ জনের। 

এর আগের দিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা শনাক্ত হয় ১ লাখ ৬৭ হাজার ৫২৪ জন। মৃত্যু হয় ১ হাজার ৪২১ জনের। তার আগেরদিন দেশটিতে শনাক্ত হয়েছিল ১ লাখ ২৮ হাজার ৮৯১ জন এবং মৃত্যু হয় ৭০২ জনের।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনার নতুন ঢেউয়ে সেই তুলনায় আক্রান্ত এবং মৃত্যু দুইটি বাড়ছে দেশটিতে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই না, বিশ্বের আরও অনেক দেশে গত সাড়ে ছয় মাসের মধ্যে আবারও বাড়ছে করোনার ভয়াবহতা।

বিজ্ঞাপন

গত দুইমাস ধরে ইন্দোনেশিয়ায় করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকলেও এখন অনেকটাই কমেছে। ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ১০ হাজার, মৃত্যু ৬৫৩ জন। তবে ইন্দোনেশিয়ায় করোনার প্রকোপ কমলেও ভিয়েতনামে একদিনেই মৃত্যু ৮ শতাধিক ছাড়িয়েছে।

ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে একদিনে মৃত্যু হয়েছে ৭০৩ জন, আক্রান্ত ২৬ হাজার ৩৪৮ জন। মেক্সিকোতে আবারও বৃদ্ধি পেয়ে শেষ ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৩৫ জনে, এই সময়ে আক্রান্ত হয়েছে ১১ হাজার ।

পরিসংখ্যান বলছে, করোনার নতুন ঢেউ এখনও ছড়িয়ে যাচ্ছে বিশ্বের অনেক দেশেই। যার ফলে সেসব দেশে এখনও করোনার মৃত্যু বাড়ছে। রাশিয়া এর মধ্যে একটি। দেশটিতে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৭৯০ জন আর আক্রান্ত ১৮ হাজার ৩৬৮ জন।

এখন পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪৫ লাখ ৪৫ হাজার ১৫৯ জন। আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ২১ কোটি ৯২ লাখ ৬৫ হাজার ৬৫১ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর গত বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে।

বিজ্ঞাপন