চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মুখোমুখি নয়, আলোচনা হবে পাশাপাশি কক্ষে

সিরিয়ায় শান্তি ফিরিয়ে আনতে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় আলোচনা শুরু হয়েছে।

শেষ মুহূর্তের ঘোষণায় শর্তসাপেক্ষে আলোচনায় যোগ দিতে রাজি হয়েছে সিরিয়ার সরকারবিরোধীদের গুরুত্বপূর্ণ জোট এইচএনসি।

শান্তি আলোচনার মধ্যেই সিরিয়ায় আইএস স্থাপনায় বিমান হামলার ঘোষণা দিয়েছে নেদারল্যান্ডস।

সিরিয়ায় প্রায় ৫ বছরের যুদ্ধ কেড়ে নিয়েছে আড়াই লক্ষের বেশি প্রাণ। ঘর, বাড়ি এমনকি দেশছাড়া হয়েছেন ১ কোটিরও বেশি মানুষ। সংঘাতের শুরুটা প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের সমর্থক ও বিরোধীদের দিয়ে হলেও, পরিস্থিতির সুযোগ নিয়ে তৃতীয় পক্ষ হিসেবে আবির্ভূত হয় জঙ্গি সংগঠন আইএস।

Advertisement

মূলত আইএসকে দমনেই যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়াসহ পশ্চিমা দেশগুলোর তাগিদে জেনেভায় শান্তি আলোচনার উদ্যোগ। প্রথমদিনেই সিরিয়া ইস্যুতে জাতিসংঘের দূত স্তাফান দি মিসতুরা’র সঙ্গে সিরীয় সরকারের প্রতিনিধি দলের আলোচনা হয়।

দেরিতে হলেও ঘোষণা আসে, সিরিয়ার সরকারবিরোধীদের সৌদি সমর্থিত জোট হাই নেগোশিয়েসন্স কমিটি-এইচএনসি আলোচনায় যোগ দেবে। ৩০ থেকে ৩৫ জনের প্রতিনিধি দল পাঠানোর কথা জানানো হয়। রোববারই তারা আলোচনায় যোগ দিতে পারে।

শান্তি আলোচনার প্রক্রিয়াটি বেশ সময়সাপেক্ষ। ৬ মাস ধরে বিভিন্ন পর্যায়ে ধাপে ধাপে আলোচনা হবে। তবে দু’পক্ষের মতবিরোধ এতটাই বেশি যে, সরকারপন্থী ও বিরোধীরা একই কক্ষে বসবেন না। পাশাপাাশি কক্ষে তাদের মধ্যে কথা চালাচালির কাজটা করবেন জাতিসংঘ কর্মকর্তারা।

আপাতত আলোচনায় অস্ত্রবিরতি, মানবিক সহায়তা ও আইএস প্রতিরোধের মত ইস্যু গুরুত্ব পাবে। তবে চূড়ান্ত লক্ষ্য, নির্বাচনের মধ্য দিয়ে সিরিয়ায় শান্তি ফিরিয়ে আনা।