চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র বিক্রিতে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র বিক্রির উদ্যোগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে হাইকোর্ট।

এছাড়া এধরনের কি পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র আছে এবং তা কি অবস্থায় আছে সে বিষয়ে আগামী ছয় মাসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলেছেন আদালত। মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র বিক্রির উদ্যোগে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে করা রিটের শুনানি নিয়ে বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের ভার্চুয়াল হাই কোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার রুলসহ এই আদেশ দেয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

আদালত তার রুলে মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র বিক্রি বা স্থানান্তর কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না এবং জাতীয় ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য অবিলম্বে এইসব অস্ত্র সংরক্ষণে কার্যকর পদক্ষেপের নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে। প্রতিরক্ষা সচিব, অর্থ সচিব, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সচিব এবং বাণিজ্য সচিবকে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আজ আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী জেড আই খান পান্না। তার সাথে ছিলেন আইনজীবী শামসুদ্দিন বাবুল, আইনুন্নাহার সিদ্দিকা ও শাহিনুজ্জামান।  রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নওরোজ রাসেল চৌধুরী।

‘মুক্তিযুদ্ধের অস্ত্র বেচতে চায় সরকার’ এই শিরোনামে গত ৫ অক্টোবর দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকা একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সে প্রতিবেদনটি যুক্ত করে আইনজীবী জেড আই খান (পান্না) ও মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্রের পক্ষ থেকে গত ১৫ অক্টোবর হাইকোর্টে রিট করা হয়।