চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘মুক্তিযুদ্ধের অনেক গুরুত্বপূর্ণ দিক ও ক্ষেত্র এখনো অনাবিষ্কৃত’

আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের অনেক গুরুত্বপূর্ণ দিক ও ক্ষেত্র এখনো অনাবিষ্কৃত বলে মন্তব্য করেছেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। তিনি বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের এসব উপাদান আবিষ্কার ও রচিত না হলে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস অপূর্ণাঙ্গ থাকবে। এ ইতিহাস সংগ্রহ ও রচনা করা ইতিহাসবিদ ও গবেষকসহ আমাদের সচেতন মহলের নৈতিক দায়িত্ব।’

রাজধানীর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে বাংলাদেশ ইতিহাস পরিষদ আয়োজিত ১২তম দ্বি-বার্ষিক (৪৮তম বার্ষিক) আন্তর্জাতিক ইতিহাস সম্মেলন ও সাধারণ সভার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আসাদুজ্জামান নূর বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধাদের শতকরা ৮৫ ভাগ ছিলেন গ্রামের নিরক্ষর দরিদ্র কৃষকের সন্তান। তাঁদের সাহস ও দেশপ্রেমের কথা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিষয়ক গ্রন্থসমূহে তেমন একটা খুঁজে পাওয়া যায় না। গ্রামের গৃহবধুরা কতটা জীবনের ঝুঁকি ও দেশপ্রেম নিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের নিজ ঘরে আশ্রয় দিয়েছিলেন, ইতিহাসের পাতায় সেটাও খুঁজে পাওয়া ভার।’

বিজ্ঞাপন

মন্ত্রী বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধকালীন ১ কোটি শরণার্থীর দুঃখ-কষ্ট ও যন্ত্রণার ইতিহাস এবং ঐ সময়ে প্রতিবেশী ভারতের সাধারণ মানুষের সাহায্য ও ভালোবাসা বিষয়ক কোন গ্রন্থ এখনো প্রকাশিত হয়নি। এসব ইতিহাস সঠিকভাবে অন্তর্ভূক্ত করতে না পারলে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস যথার্থ হবে না বলে আমি মনে করি।’

এর আগে সম্মেলন উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। ইতিহাসবিদ প্রফেসর আবদুল মতিন সরকার এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান। মূল সম্মেলন (২৭-২৮ এপ্রিল) এর সভাপতি বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান উদ্বোধনী অধিবেশনে সম্মানীয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা প্রদান করেন বাংলাদেশ ইতিহাস পরিষদ এর সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী।

বিজ্ঞাপন