চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মায়ের সঙ্গে শিশুকেও আদালতে পাঠালো পুলিশ, জামিন দিলেন বিচারক

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী এক মায়ের সাথে দুই বছরের শিশুটিকেও আদালতে পাঠায় পুলিশ। পরে দুপুরে ভূঞাপুর আমলী আদালতের বিচারক আকরামুল ইসলাম ওই মায়ের জা‌মিন মঞ্জুর ক‌রেন।

ভুঞাপুর আমলী আদালতের বিচারক আকরামুল ইসলাম ওই নারীর জা‌মিন মঞ্জুর ক‌রেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এর আগে শনিবার রাতে উপজেলার গাবসারা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে রবিবার সকালে আদালতে প্রেরণের আগ পর্যন্ত থানা হেফাজতে রাখা হয়। এসময় শিশু দু’টির শীত নিবারণের জন্য কোন প্রকার গরম পোশাক না থাকায় থানা কর্তৃপক্ষ তাদের শীতের গরম পোশাক উপহার দেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রাশেদুল ইসলাম।

বিজ্ঞাপন

গ্রেপ্তার হওয়া ওই নারী উপজেলার গাবসারা ইউনিয়নের জুংগীপুর গ্রামের খোরশেদের স্ত্রী। তবে ওই নারীর দুই শিশুর নাম জানাতে পারেনি পুলিশ।

ওই নারীর স্বজনরা জানায়, টাঙ্গাইল আদালতে এনআইএ্যাক্ট মামলায় ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী ওই নারীকে গতকাল শনিবার রাতে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাহমুদুল হাসানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করে। এসময় দুই বছরের কোলের শিশু সন্তান ও পাচঁ বছরে এক শিশুকে রাতেই থানা নিয়ে আসে। হয়। পরে রবিবার সকালে কোলের শিশুসহ তাকে আদালতে প্রেরণ করে পুলিশ। এসময় ৫ বছরের শিশুকে তার এক চাচীর কাছে রাখা হয়।

থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাহমুদুল হাসান জানান, কোর্টের মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ছিল। পরে ওই নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে শিশুরা তার মায়ের সাথে আসতে চাইলে তাদেরকেও নিয়ে আসা হয়। এসময় তার কোলের এক শিশুকেও সাথে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। তবে শিশু দুটি মামলার সাথে সম্পৃক্ত না হওয়ায় তাদের নাম জানা হয়নি।

এবিষয়ে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রাশিদুল ইসলামের বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তার অনুমতি ব্যতিত ফোনে বক্তব্য দেয়া নিষেধ।

এদিকে দুপুরে টাঙ্গাইল আদালতে প্রেরণ করা হলে জামিন মঞ্জুর হয়।

বিজ্ঞাপন