চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মার্কিন বিচারপতি হিসেবে শপথ নিলেন অ্যামি কনি ব্যারেট

মার্কিন নির্বাচনের ঠিক এক সপ্তাহ আগে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের তৃতীয় নারী বিচারপতি হিসেবে শপথ নিয়েছেন অ্যামি কনি ব্যারেট। 

সোমবার রাতে মার্কিন সেনেটের ৫২-৪৮ ভোটে এগিয়ে সুপ্রিম কোর্টের বিচারক পদে অ্যামি কনি ব্যারেট প্রয়াত বিচারপতি রুথ বেডার গিন্সবার্গের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, অ্যামি কনি ব্যারেটের নিয়োগ এর মাধ্যমে বর্তমানে সুপ্রিম কোর্টে বিচারক প্যানেলে রক্ষণশীলরা ৬-৩ এ এগিয়ে গেল।

৪৮ বছর বয়সী অ্যামি হলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কর্তৃক নিয়োগ পাওয়া তৃতীয় বিচারক। এর আগে ২০১৭ সালে নেইল গরসাচ ও ২০১৮ সালে ব্রেট ক্যাভানোকে বিচারক হিসেবে নিয়োগ দেন ট্রাম্প।

‘অ্যমি কনি ব্যারেট’ ধর্মীয় রক্ষণশীলদের একজন পছন্দনীয় ব্যক্তিত্ব। হোয়াইট হাউস রোজ গার্ডেনে এক বক্তব্যে ট্রাম্প তাকে ‘অসামান্য কৃতিত্বের একজন নারী’ হিসেবে উল্লেখ করেন করেছিলেন।

এই নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে সিনেটে এই মনোনয়ন নিশ্চিত করা নিয়ে রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাটদের মধ্যে তীব্র লড়াই শুরু হয়েছিল। অবশেষে বিচারপতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন অ্যামি কনি।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের বিচারকরা আমৃত্যু এ পদে থাকার সুযোগ পান। তাদের সিদ্ধান্ত কয়েক দশক পর্যন্ত অস্ত্র নীতিমালা, ভোটাধিকার থেকে শুরু করে গর্ভপাত পর্যন্ত সবগুলো সর্বজনীন নীতিকে আকার দিতে পারে।

ডেমোক্র্যাটরাসহ নাগরিক অধিকার নিয়ে সোচ্চার যুক্তরাষ্ট্রের উদারনৈতিক গোষ্ঠীগুলো ব্যারেটের এ নিয়োগ নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রকাশ করেছেন।

ইন্ডিয়ানার নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে স্নাতক শেষ করার পরে তিনি প্রয়াত বিচারপতি আন্তোনিন স্কালিয়ার ক্লার্ক হিসেবে কাজ করেন।

২০১৭ সালে তাকে শিকাগো ভিত্তিক সপ্তম সার্কিট কোর্ট অব আপিল বেঞ্চে নিয়োগ দিয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

গত ১৮ সেপ্টম্বরে ওয়াশিংটন ডিসিতে ৮৭ বছর বয়সে বিচারপতি গিন্সবার্গ মারা যান। যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের সবচেয়ে বয়োজ্যেষ্ঠ বিচারপতি ছিলেন তিনি। সুপ্রিম কোটে নিয়োগ পাওয়া দ্বিতীয় নারী বিচারপতিও ছিলেন গিন্সবার্গ।

তার মৃত্যুতে সর্বোচ্চ আদালতের খালি হওয়া বিচারপতির আসন পূরণ নিয়ে ডেমোক্র্যাট আর রিপাবলিকানদের রাজনৈতিক বিরোধ দেখা যায়।