চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মানুষের কল্যাণে আরও সম্পদ বিলিয়ে দেবেন ম্যাকেনজি

২৮৬টি সংগঠনে দেবেন ২.৭ বিলিয়ন ডলার

বিশ্বের শীর্ষধনী ও অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোসের সাবেক স্ত্রী ম্যাকেনজি স্কটের বর্তমান মোট সম্পদের পরিমাণ প্রায় ৬০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। এই সম্পদের একটি বড় অংশ তিনি মানুষের কল্যাণে বিলিয়ে দেবেন বলে জানিয়েছে। 

গত ডিসেম্বরে ৪ বিলিয়ন ডলার দান করার পর আবার তিনি ঘোষণা দিয়েছেন, ২৮৬টি দাতব্য সংগঠনকে ২.৭ বিলিয়ন ডলার দেবেন। এই সংগঠনগুলোর মধ্যে রয়েছে শিল্প-সংস্কৃতি, শিক্ষাসহ পশ্চাদপদ জনগোষ্ঠিদের নিয়ে কাজ করা সংগঠন।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে স্কট তার এক ব্লগ পোস্টের মাধ্যমে বলেন, আমি অর্থগুলো এমন অনুন্নত এবং অবহেলিত জায়গায় ব্যয় করতে চাই, যারা সত্যিকার অর্থেই এই সাহায্য প্রাপ্তির যোগ্য।

গত ডিসেম্বরের হিসেব অনুযায়ী স্কট মাত্র চার মাসের মধ্যে প্রায় ৪ বিলিয়ন নগদ অর্থ বিভিন্ন দাতব্য প্রতিষ্ঠানে অনুদান প্রদান করেন। তার মধ্যে নারী নেতৃত্বাধীন চ্যারিটি সংগঠন, ফুড ব্যাংক এবং কৃষ্ণাঙ্গ কলেজও রয়েছে।

ম্যাকেনজি স্কট বর্তমানে বিশ্বের মধ্যে তৃতীয় শীর্ষস্থানীয় ধনী মহিলা। তার এই বিশাল সম্পদের বেশীরভাগ অংশই এসেছে ২০১৯ সালে বিচ্ছেদ ঘটা সাবেক স্বামী বিশ্বের সর্বোচ্চ ধনী জেফ বেজোসের কল্যাণে। স্কট এবং বেজোস বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয় ১৯৯৩ সালে, এরপর প্রায় দীর্ঘ ২৬ বছর পর বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে এই দম্পতির।

১৯৯৪ সালে গড়া প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনের সাথে চুক্তি অনুযায়ী প্রায় ৪ শতাংশ শেয়ারের মালিক বনে যান স্কট।

ফোর্বসের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, অনুদান প্রদানের পর স্কটের বর্তমান সম্পদের পরিমাণ প্রায় ৫৯.৫ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। প্রাপ্ত এই বিপুল পরিমাণ অর্থ মানবকল্যাণে ব্যয় করতে ইতোমধ্যেই একটি রিচার্জ টিম গঠন করেছেন বলে ব্লগ পোস্টে জানিয়েছেন স্কট ম্যাকেনজি।

বিজ্ঞাপন