চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মানি লন্ডারিং নিয়ে আলোচিত ৬ সিনেমা

চুরি বিদ্যা মহা বিদ্যা যদি না পড়ো ধরা!

মানি লন্ডারিং একটা শিল্প, তবে খারাপ কাজ। তবুও কথায় আছে ‘চুরি বিদ্যা মহা বিদ্যা যদি না পড়ো ধরা!’ ইদানিং এই শিল্পে দক্ষতা অর্জন করে অবৈধ উপায়ে উপার্জিত কালো টাকা সাদা করে শিরোনামে আসছেন অনেকেই।

মানি লন্ডারিং একটি অবৈধ অর্থনৈতিক কার্যক্রম। সাধারণত মাদকদ্রব্য কারবারি, অসৎ রাজনৈতিক নেতা বা সরকারি আমলারা এরকম পন্থার আশ্রয় নেন।

নিষিদ্ধ বিষয়ের প্রতি মানুষের আগ্রহ বেশি থাকে। আর তাই মানি লন্ডারিং নিয়েও মানুষের কৌতূহলের শেষ নেই। আর এই কৌতূহলকে পুঁজি করে নির্মাণ করা হয়েছে বেশ কিছু হলিউড সিনেমা। মানি লন্ডারিং নিয়ে নির্মিত আলোচিত কিছু সিনেমা থাকলো এই ফিচারে:

ওলফ অব ওয়াল স্ট্রিট (২০১৩): আশির দশকের মাঝামাঝির সময়ের ঘটনা দেখানো হয়েছে মার্টিন স্করসিসের এই ছবিটিতে। ছবিটি যেন ‘ওয়াল স্ট্রিট’ এরই প্রতিচ্ছবি। জর্ডান বেলফোর্টের চরিত্রে অভিনয় করেছেন লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও।

বিজ্ঞাপন

মানি মনস্টার (২০১৬): জোডি ফস্টার পরিচালিত এই ছবিতে দীর্ঘদিন পরে এক পর্দায় দেখা গিয়েছিল জুলিয়া রবার্টস এবং জর্জ ক্লুনিকে। ছবিতে দেখা যায় একটি নিউজরুমে সবাইকে জিম্মি করেন এক ব্যক্তি। একটি ভুল পরামর্শ পেয়ে হওয়া ক্ষতির কারণে সবাইকে জিম্মি করতে দেখা যায় তাকে।

লিথাল উইপন টু (১৯৮৯): রিচার্ড ডোনারের ‘লিথাল উইপন টু’ ছবিটি ‘লিথাল উইপন’ এর মতোই। তবে এতে আরও ভয়াবহ ভাবে দেখানো হয়েছে বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যক্রম। ছবিতে লিও গেটজ চরিত্রে অভিনয় করেছেন জো পেসকি। ‘লিথাল উইপন টু’তে লিও গেটজ জানিয়ে দেন কীভাবে তিনি ৫০০ ডলার লন্ডার করতে পেরেছিলেন।

বয়লার রুম (২০০০): স্টক, বন্ড, ব্যবসা সম্পর্কে খুব বেশি না জানলেও বেন ইয়ংগার পরিচালিত ‘বয়লার রুম’ ছবিটি উপভোগ করতে পারবেন যে কেউ। ভিন ডিজেল, বেন অ্যাফ্লেকসহ আরও অনেক তারকা আছেন ছবিতে। টান টান উত্তেজনায় ভরপুর এই ছবিটি এক নিঃশ্বাসে দেখে ফেলার মতো।

দ্য বিগ শর্ট (২০১৫): ২০০৮ সালে আমেরিকার অর্থনৈতিক মন্দার ঘটনা তুলে ধরা হয়েছে ছবিতে। ম্যাকেয়’র কমেডি ঘরনার এই ছবিটি দর্শকদের মন কেড়েছিল।

মার্জিন কল (২০১১): এই ছবিটি কেভিন স্পেসির অন্যতম একটি সিনেমা। মার্কেট ক্র্যাশ করার পেছনের কারণগুলো অনুসন্ধান করে বের করা হয়ে এই ছবিতে।

Bellow Post-Green View