চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মানসিক রোগে আক্রান্ত হতে পারেন কোহলি-রোহিতরা

দীর্ঘদিন জৈব নিরাপত্তা বলয়ে থাকলে মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত হতে পারেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা, এমনটাই শঙ্কা প্রকাশ করেছেন দেশটির সাবেক মনোবিদ ও কন্ডিশনিং কোচ প্যাডি আপ্টন। তাই জৈব বলয়ে থাকা ক্রিকেটারদের মানসিক অবস্থা মাঝে মাঝে পর্যালোচনা করার জন্য ভারতসহ অন্য দেশের ক্রিকেট বোর্ডগুলোকে অনুরোধ করেছেন সাউথ আফ্রিকান এই কোচ।

বোর্ডগুলোকে প্যাডি আপ্টনের পরামর্শ হচ্ছে, জৈব বলয়ের মধ্যে কিভাবে খেলোয়াড়রা জীবনযাপন করছেন সেই বিষয়ে সেই দেশের কর্মকর্তাদের পুরো তথ্য রাখা উচিত। কোনও খেলোয়াড় অসুস্থ হয়ে পড়লে যেন দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া যায় তারও পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

করোনার সময় দর্শকহীনভাবে কঠিন জৈব সুরক্ষা বলয়ের মাঝে থেকে মাঠে নামছেন ক্রিকেটাররা। বাইরে যাওয়া তো দূরের কথা, কিছু কিছু দেশে হোটেলের এক কক্ষ থেকে অন্য কক্ষে যাওয়ার অনুমতিও পর্যন্ত পান না এই খেলোয়াড়রা। পরিবার-পরিজন থেকে দূরে থেকে এভাবে দিনকে দিন সময় কাটালে খেলোয়াড়দের মানসিক সমস্যা তৈরি হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন আপ্টন।

‘জৈব বলয়ের মধ্যে থাকার সময় খেলোয়াড়রা কী কী সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে, সেটা নিয়ে যথেষ্ট মাথা ঘামানো হচ্ছে না। ফলে কেউ যদি বলয়ের মধ্যে মাসের পর মাস থাকার জন্য মানসিক রোগে আক্রান্ত হয়, তাহলে তাদের চিকিৎসার জন্য সঠিক ওষুধ দেওয়া বেশ কঠিন হয়ে যাবে।’

সদ্য শেষ হওয়া অস্ট্রেলিয়া সফরে কঠিন কোয়ারেন্টাইন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। বিতর্কও হয়েছে এক প্রস্থ। আপ্টন বলছেন, ‘হোটেল থেকে মাঠ, মাঠ থেকে হোটেল, এটাই তো নতুন পৃথিবী। খেলোয়াড়দের এটার সঙ্গে মানিয়ে নিতে অনেকটা সময় লাগবে। মাসের পর মাস বহির্জগৎ থেকেও সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন থাকার জন্য তাদের মনে বিরক্তি আসা খুবই স্বাভাবিক। এরপর খেলোয়াড়রা মাঠে নেমে ভাল খেলতে না পারলে সমস্যাটা আরও বড় হয়ে যায়।’