চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মাগুরায় স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা

যৌতুকের মামলা করায় মাগুরার শলিখা উপজেলার ছয়ঘরিয়া গ্রামে ফাতেমা বেগমকে (২৪) গতরাতে কুপিয়ে জখমসহ পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে তার স্বামীসহ দুর্বৃত্ত একটি গ্রুপ। আহত ফাতেমা মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

ফাতেমার অভিযোগ একই গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে হুমায়ুনের সাথে ৬ বছর আগে তার বিয়ে হয়। তাদের ৪ বছরের একটি কন্যা সন্তান আছে। মেয়েটি জন্মের পর থেকেই মাদকাসক্ত স্বামী হুমায়ুন তাকে যৌতুকের দাবিতে নানাভাবে নির্যাতন করতেন। নির্যাতনের স্বীকার হয়ে একাধিকবার বাবার বাড়িতে চলে যান। পরে স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকদের অনুরোধ ও নিজের কন্যা শিশুর মুখের দিকে তাকিয়ে তিনি ফিরে আসেন। নির্যাতনের মাত্রা আরো বেড়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ফাতেমা বাবার বাড়িতে আশ্রয় নেয় এবং গত ৩ আগস্ট স্বামী হুমায়ুনের বিরুদ্ধে যৌতুক ও নারী নির্যাতনের মামলা করেন। এ মামলায় হুমায়ুন ৫ আগস্ট জেলে যান। ২৭ আগস্ট জামিনে মুক্তি পান। পাশাপাশি তাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। এই পরিকল্পনা অনুযায়ী ২৭ আগস্ট মঙ্গলাবার রাতে ফাতেমা প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে এলে হুমায়ুনসহ একটি দুর্বৃত্ত গ্রুপ তার মুখ চেপে ধরে পার্শ্ববর্তী বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে কুপিয়ে ও আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করে। ফাতেমার চিৎকারে তার বাবা সেখানে এলে তাকে মারধর করে। পরে প্রতিবেশিরা এগিয়ে এলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। ঘটনার পর থেকে ফাতেমার স্বামী পলাতক রয়েছে।

এ ব্যাপারে শালিখা থানার অফিসার ইনচার্জ তরিকুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি শুনে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। নির্যাতিতার অভিযোগের ভিত্তিতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Bellow Post-Green View