চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মাকে দেখতেই যতো তাড়াহুড়ো!

লকডাউনের কারণে শেষবার মাকে দেখতে পারেননি, মায়ের মৃত্যুর তিন দিন পর মারা গেলেন ছেলে ইরফান খান….

শনিবার (২৫ এপ্রিল) মারা যান ইরফান খানের মা সাইদা বেগম। বার্ধক্যজনিত কারণেই মৃত্যু হয় তাঁর। কিন্তু ভারতব্যাপী লকডাউনের কারণে শেষবার মায়ের মুখটি দেখতেও যেতে পারেননি ছেলে ইরফান।

দুর্ভাগ্যবশত মায়ের মৃত্যুর তিন দিন পর বুধবার (২৯ এপ্রিল) সকালে চলে গেলেন ইরফান খান নিজেও!

বিজ্ঞাপন

তাইতো ইরফান সমর্থক একজন ভারতীয় প্রিয় অভিনেতার মৃত্যু সংবাদ টুইট করে লিখলেন, অন্তিম যাত্রায় মাকে শেষবার দেখতে না পেরেই তাড়াহুড়ো করে চলে গেলেন ছেলে ইরফান!

বিজ্ঞাপন

শনিবার (২৫ এপ্রিল) ভারতের জয়পুরে মারা যান ইরফান খানের মা। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর। মুম্বাই অবস্থান করায় ভারতব্যাপী লকডাউনের কারণে মায়ের অন্তিত যাত্রায় পাশে থাকতে পারেননি ইরফান।

জানা যায়, এজন্য মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন তিনি। এদিকে কয়েক দিন থেকেই তার শরীরের অবস্থাও খারাপের দিকেই যাচ্ছিলো। ব্রেইন টিউমারের অপারেশনে সুস্থ হলেও সম্প্রতি তাতে ইনফেকশন দেখা দিয়েছিলো। মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) তার অবস্থা বেশি খারাপ হয়ে যাওয়ায় ভর্তি করানো হয় হাসপাতালে।

শেষ রক্ষা হলো না। বুধবার সকালেই তার মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসে।

অসুস্থতা জয় করে প্রবল প্রাণশক্তি নিয়ে আবারও অভিনয়ে ফিরেছিলেন ইরফান। অভিনয় করেছেন ‘আংরেজি মিডিয়াম’ এ। ১৩ মার্চ ছবিটি মুক্তি পায়। কিন্তু ভারতে করোনাভাইরাসের কারণে সব সিনেমা হল বন্ধ করে দেয়াতে ব্যবসা করতে পারেনি ছবিটি।