চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মাকে খুন করতে বাবাকে সহায়তা করে ছেলে

আর্থিকভাবে লাভবান ও বড় ভাইকে ফাঁসাতে গিয়ে ছেলে ও স্ত্রীর ভাইয়ের ছেলেকে সাথে নিয়ে নিজের স্ত্রীকে হত্যা করে আলাল উদ্দিন (৫০)।

বৃহস্পতিবার টাঙ্গাইল জেলা পুলিশ সুপারের সভাকক্ষে প্রেস ব্রিফিং এমন তথ্য জানান পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন: গত ১৪ তারিখ সোমবার মির্জাপুর উপজেলার আজগানা এলাকার আউলিয়াবাদ এলাকা থেকে সুফিয়া বেগম নামের এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরদিন নিহতের ভাই বাদী হয়ে মির্জাপুর থানায় অজ্ঞাতনামা আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

বিজ্ঞাপন

‘পরবর্তীতে পুলিশের বিভিন্ন সোর্স এবং তথ্য প্রযুক্তি ব্যাবহার করে হত্যার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে নিহতের স্বামী আলাল উদ্দিন, ছেলে শরিফুল ইসলাম এবং স্ত্রীর ভাতিজা স্বপন মিয়াকে কালিয়াকৈর উপজেলার মাটিকাটা এলাকা থেকে আটক করা হয়’, বলেন পুলিশ সুপার।

রঞ্জিত কুমার রায় বলেন: পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায় ভাইয়ের সাথে দীর্ঘদিনের পারিবারিক বিরোধে তাকে ফাঁসাতে এ হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়। এছাড়া বিভিন্ন এনজিও থেকে নেওয়া লাখ লাখ টাকা ঋণ নিয়েছিল হত্যাকারী। এসব টাকা বউয়ের নামে তোলা হয়েছে। আর সেই টাকা যাতে পরিশোধ করতে না হয় সেজন্য ছেলে, স্ত্রীর ভাতিজা এবং সে নিজেই পরিকল্পিতভাবে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে বিলের পানিতে মরদেহ ভাসিয়ে দেয়।

আলাল উদ্দিন মির্জাপুর উপজেলার আজগানা পূর্বপাড়া গ্রামের মৃত সিরাজ উদ্দিনের ছেলে।

আসামীদের ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির জন্য আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Bellow Post-Green View