চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনা নিয়ন্ত্রণে কিছু ব্যর্থতার কথা জানালো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

করোনাভাইরাসে সংক্রমিত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা লোকজনের সঠিক কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে হবে বলে নতুন করে জোর পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিওএইচও)। ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকায় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে সোমবার ডব্লিওএইচও এ কথা বলেছে। 

সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ও জরুরি চিকিৎসক মাইকেল রায়ান উত্তরাঞ্চলীয় হ্যাম্পশ্য়ায়ারে সংক্রমণ হার বেড়ে যাওয়া প্রসঙ্গে কঠোর পদক্ষেপ বাস্তবায়ন ব্যর্থতাকে দায়ী করেছেন। জেনেভা থেকে ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সে তিনি এসব জানান।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, নিশ্চিত সংক্রমিত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা প্রত্যেক ব্যক্তিকে উপযুক্ত সময়ের জন্যে অবশ্যই কোয়ারেন্টাইন বাস্তবায়ন করতে হবে। পদ্ধতিগতভাবে কোথাও এ কোয়ারেন্টাইন মানা হচ্ছে বলে আমি মনে করি না। এ কারণে সংক্রমণের ধারা বেড়ে যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

রায়ান আরো বলেন, জাতিসংঘ স্বাস্থ্য সংস্থার ইউরোপ অঞ্চলের ৪৮টি দেশের অর্ধেকেরও বেশিতে গত এক সপ্তাহে সংক্রমণ হার ৫০ শতাংশেরও বেশি বেড়েছে। তবে আশার কথা হলো মৃত্যু ও মারাত্মক অসুস্থতার হার চলতি বছরের প্রথম দিকের মতো উচ্চ নয়। এখন তরুণরা অনেক বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। চিকিৎসায় তারা সুস্থও হয়ে উঠছে।

সংস্থা প্রধান টেডরস আধানম গেব্রিয়াসিস সংক্রমণ রোধে সম্মিলিত পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই আমরা করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করছি। কিন্তু আশার কথা হলো আমরা যদি সম্মিলিত পদক্ষেপ নেই তাহলে সংক্রমণ কমিয়ে আনতে পারবো।

এদিকে বিশ্বজুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা চার কোটি ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে সংস্থাটি বলছে, মানব শরীরে ৪২টি টিকার পরীক্ষা চলছে। এর মধ্যে ১০টি পরীক্ষার তৃতীয় ও চূড়ান্ত ধাপে রয়েছে।