চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মরতে মরতে বাঁচলেন টম ক্রুজ

বিশাল বড় এক যাত্রী বিমানের ডানায় চড়েছেন হলিউডের মাল্টিমিলিয়ন ডলার তারকা টম ক্রুজ। উদ্দেশ্য বিমানের বন্ধ দরজা খুলে ভেতরে ঢোকা। দরজা খুলে ঢোকার চেষ্টা করছেন, এমন সময় রানওয়ে ধরে চলতে শুরু করলো উড়োজাহাজ। চলন্ত বিমানে বাতাসের ধাক্কা সামলে কোনো রকমে দরজা ধরে খোলার চেষ্টা করছেন।

তাকে নিয়েই হঠাৎ করে রানওয়ে ছেড়ে আকাশে উঠে গেলো বিমানটি। ঘণ্টায় ৪০ মাইল বেগে ছুটে চলেছে। তীব্র হাওয়ার তোড়ে যেনো উড়েই যাচ্ছেন টম! পা উঠে গেছে শূন্যে। প্রচণ্ড ভয়ে বেঁকে গেছে মুখ। চিৎকার করে সঙ্গীকে বলছেন দরজা খুলে দিতে…

এ দৃশ্য বাস্তবের না, ৫৩ বছর বয়সী হলিউড সুপার স্টার টম ক্রুজের নতুন ছবি মিশন ইম্পসিবল ৫ এর। মিশন ইম্পসিবল সিরিজের এবারের ছবিতে দেখানো সব স্টান্টই দেখলে মনে হবে আসল। কারণ সেগুলোই আসলেই ‘আসল’!

বিজ্ঞাপন

ছায়াছবির প্রতিটি স্টান্ট টম নিজেই করেছেন, কোন স্টান্ট আর্টিস্টের সাহায্য ছাড়া। বিমানের বিশেষ ওই স্টান্ট বহুবার নিষেধ করা সত্ত্বেও তিনি নিজে করেছেন। সবাই মনে করেছিলো স্টান্টটি করা টমের জন্য এক ‘মিশন ইম্পসিবল’। কিন্তু অসম্ভবকে সম্ভব করা টমেরও কাজ! বিমানে তিনি চড়লেন, স্টান্ট পারফর্ম করলেন। তাও একবার না, আটবার!

শ্যুটিংয়ের আগের দিন ভয়ে-দুশ্চিন্তায় ঘুমাতে পারেননি টম। একে তো এমনিতেই ভীষণ বিপজ্জনক কাজ, তার উপর আকাশে থাকা অবস্থায় কোন ভুল হয়ে গেলে অবতরণের আগে পুরোটা সময়ই দরজায় ঝুলে কাটাতে হতো তাকে! সৌভাগ্যবশত এমন কিছু ঘটেনি তার কপালে। বিমান ছাড়াও গাড়ি আর বাইকে ভয়ানক কিছু স্টান্ট করে মৃত্যুর মুখ থেকে নিরাপদে ফিরে এসেছেন টম ক্রুজ মিশন ইম্পসিবলের নতুন সিক্যুয়েলে, যার নাম ‘মিশন ইম্পসিবল-রোউগ নেশন’।

ছবিটি যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পেয়েছে ৩১ জুলাই আর ভারতে ৬ আগস্ট। বাংলাদেশেও ছবিটি মুক্তি পেয়েছে।

বিজ্ঞাপন