চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মন ভেঙেছে, তবে আশা শেষ হয়নি

দলের সমালোচনায় ওয়াসিম আকরাম

বিশ্বকাপের আরও একটি ম্যাচ হেরে মন ভেঙেছে পাকিস্তানি সমর্থকদের। বুধবার নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৪১ রানে হারে পাকিস্তান।  তবে মন ভাঙলেও তারা এখনো আশা ছেড়ে দেননি।

হারে হতাশ হলেও ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী পাকিস্তানি সমর্থকরা। ম্যাচ শেষে পাকিস্তানের জিও নিউজকে এক সমর্থক বলেন, ‘আমি ক্যালিফোর্নিয়া (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে এসেছি। কিন্তু আজকের (বুধবার) খেলায় আমি হতাশ। আমার খুব মন খারাপ।’

বিজ্ঞাপন

আরেকজন বলেন, ‘তারা (পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান) দায়িত্বহীন শট খেলে উইকেট হারিয়েছে। অস্ট্রেলিয়া অনেক ভালো বল করেনি, কিন্তু আমরা অনেক খারাপ খেলেছি।’

পাকিস্তান দলের ফিল্ডিংয়ের নিন্দা করে এক সমর্থক পরের ম্যাচে শোয়েব মালিককে বাদ দিয়ে সাদাব খানকে দলে নেয়ার পরামর্শ দেন।

তবে হতাশ হলেও সব সমর্থকই একটা জায়গায় একমত, সেটা হল তারা সবাই আশাবাদী।

বিজ্ঞাপন

১৯৯২ বিশ্বকাপজয়ী দলের মতো জার্সি গায়ে এক সমর্থক বলেন, ‘দল যে ঘুরে দাঁড়াবে সে ব্যাপারে আমি এখনো আশাবাদী। আমরা ১৯৯২তে এমনটা করেছিলাম, আবারো কবর। আশা করি তারা ভারতকে হারাবে।’

এদিকে, অস্ট্রেলিয়ার কাছে হারের পর দলের সমালোচনা করেছেন ওয়াসিম আকরাম। বিশেষ করে সাদাব খানকে বসিয়ে রাখা নিয়ে তোপ দাগেন সুইং বোলিংয়ের রাজা।

আকরাম বলেছেন, ‘পাকিস্তান যথাযথভাবে পিচ পড়তে ব্যর্থ হয়েছে এবং ছোট সবুজ ঘাস দেখে অনেকটা আত্মহারা হয়ে গিয়েছিল।’

দলের সেরা স্পিনার সাদাব খানকে বসিয়ে রাখায় অসন্তুষ্ট আকরাম, ‘পিচ নিয়ে ভুলের পাশাপাশি আমরা সাদাব খানকে বসিয়ে একটা বড় ভুল করেছিলাম। এটা এমন ঘটনা যে, পাকিস্তান-অস্ট্রেলিয়া খেলা হচ্ছে, আর সেই ম্যাচে শেন ওয়ার্ন, সাকলায়েন মুশতাক ও মুশতাক আহমেদকে বসিয়ে রাখছে দুদল। এটি এমন কিছু যা আসলে ঘটে না।’

আকরাম সমালোচনা করেছেন পাকিস্তান দলের ফিল্ডিংয়েরও। তবে এসব সমালোচনার মাঝে তিনি মোহাম্মদ আমিরের প্রশংসা করেন। ম্যাচে ক্যারিয়ারে সেটা ৩০ রানে পাঁচ উইকেট নেন আমির।

অস্ট্রেলিয়ার কাছে হারের ক্ষত নিয়েই ১৬ জুন ম্যানচেস্টারে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের মুখোমুখি হবে পাকিস্তান।

Bellow Post-Green View