চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মনির খানের সুবীর নন্দী পাঠ

শেষ দেখায় সুবীর নন্দীর কাছ থেকে যে শিক্ষা পেয়েছেন, কিংবদন্তি শিল্পীর বিদায় বেলায় চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে সেই মুহূর্ত নিয়ে মনির খানের স্মৃতিচারণ…

দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর মঙ্গলবার সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রয়াত হলেন দেশের বরেণ্য সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দী। তাঁর মৃত্যুতে সংগীত অঙ্গনসহ গোটা সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া। বিদায় বেলায় তাঁকে নিয়ে স্মৃতিকাতর তাঁর সমকালীন ও পরবর্তী প্রজন্মের শিল্পীরাও।

সুবীর নন্দী শিল্পী হিসেবে যতোটা বড়, মানুষ হিসেবেও ছিলেন ততোটা মহান। তার সান্নিধ্য পেয়েছেন পরবর্তী প্রজন্মের অনেকে। এরমধ্যে আছেন এক সময়ের তুমুল জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী মনির খান।

বিজ্ঞাপন

আসলে সুবীর দা আমাদের সবাইকে ছেড়ে চলে গেছেন সেটা নিয়ে যে কথা বলতে হবে এটা ভাবাটাও খুব কঠিন। -এভাবেই কথা শুরু করেছিলেন মনির খান।

সুবীর নন্দীকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে বুধবার দুপুরে চ্যানেল আই প্রাঙ্গনে এসেছিলেন এই তারকা শিল্পী। তখন সুবীর নন্দীকে নিয়ে চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে স্মৃতিচারণ করেন মনির খান।

শেষবারের সাক্ষাৎ-এর প্রসঙ্গ টেনে মনির খান বলেন: গত দেড় মাস আগে বাংলাদেশের প্রখ্যাত সংগীত শিল্পী রুনা লায়লার জন্মদিনে আমরা একসঙ্গে হয়েছিলাম। যেখানে উপস্থিত ছিলেন সৈয়দ আব্দুল হাদি ভাই, রফিকুল আলম ভাই, আলম খানসহ আরো অনেক গুণী ব্যক্তিরা। সে অনুষ্ঠানে সুবীর দা আমার ঘাড়ে হাত রেখে বলেছিলেন, ‘দেখ মনির কবে, কখন চলে যাই, শরীরটা বড়ই খারাপ! তোমরা ভাল থেকো, এই দেশ এবং দেশের মাটিকে  যতোটুকু পারো হৃদয় নিংরানো ভালোবাসা দিয়ে আকড়ে ধরে রেখো। কারণ, এই দেশে জন্মেছি বলেই আজ আমি সুবীর নন্দী, এ দেশের মানুষের ভালোবাসায় তুমি আজ তোমরা মনির খান হয়েছো। এই মানুষগুলোর প্রতি আমাদের অনেক ঋণ। যেখানেই থাকো, যেভাবেই থাকো, যতো উঁচুতেই যাও এ দেশকে এবং মানুষগুলোর কথা মনে রেখো।’

শেষ দিনের সাক্ষাৎটা জীবনের পাঠ হয়ে থাকবে বলেও মনে করেন মনির খান। ব্যথিত হৃদয়ে এই সংগীতশিল্পী আরো বলেন, সুবীর দা’র এই কথাগুলো প্রতি নিয়তই আমার কানে বাজে। কিন্তু, বিস্ময় জাগে। এই সুবীর দা কখনো আর এই কথাগুলো বলবেন না, কখনো আর আমাদের মাঝে ফিরে আসবেন না! তার এই চলে যাওয়া আমরা কোনো ভাবেই মেনে নিতে পারছি না।

আবেগাল্পুত মনির খান বলতেই থাকেন, আমরা কেউই আজীবন পৃথীবিতে থাকবো না। কিন্তু, কিছু মানুষের চলে যাওয়া আসলেই মেনে নেওয়া যায় না। এটা বড়ই বেদনার। সুবীর দা ও তেমনি চলে গেলেন। তার এই চলে যাওয়ায় বাংলাদেশ হারালো একজন গুণী শিল্পীকে, যা কখনোই পূরণ হওয়ার নয়।

বাংলাদেশ যতোদিন থাকবে, সুবীর নন্দী তাঁর গানের মধ্য দিয়ে ততোদিন বেঁচে থাকবেন বলেও জানান মনির। তিনি বলেন, আমি এটা বিশ্বাস করি যে, মানুষ কখনো তার বয়স দিয়ে বাঁচে না বরং মানুষ বাঁচে তার কর্মের মধ্য দিয়েই। তেমনি সুবীর দা’ও বেঁচে থাকবেন তার গান দিয়ে। বাংলাদেশ যতোদিন থাকবে, দেশের মানুষও তার গান ততোদিন শুনবে।

বড় শিল্পী হওয়ার চেয়ে সুবীর নন্দী ভালো মানুষ ছিলেন এমন মন্তব্য করে মনির খান আরো জানান, দুই একটা গান গাইলেই হয়তো গায়ক কিংবা গায়িকা হওয়া যায়। কিন্তু, আপাদমস্তক শিল্পী তিনিই যিনি পরিপূর্ণ মানুষ। সুবীর নন্দী তেমনই একজন পরিপূর্ণ মানুষ ও শিল্পী ছিলেন। যার কোনো বিকল্প নেই। একারণেই সুবীর দা’র চলে যাওয়াটা আমাদের সংগীত জগতে জন্য অপূরণীয় ক্ষতির কারণ হয়ে থাকবে।

Bellow Post-Green View