চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মনজুর আলমের রাজনীতি থেকে অবসর

চট্টগ্রামে সিটি নির্বাচনে রাজনীতি থেকে সরে এসে রাজনীতির মাঠ থেকেও  বিদায় নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মনজুর আলম। আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে ভোট কেন্দ্র দখলের অভিযোগ এনে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর পাশাপাশি রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার ঘোষণা দেন তিনি।

মনজুর আলম বলেন, ভোট কেন্দ্রে জালভোট, ভোট সন্ত্রাসের মাধ্যমে চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনে প্রতিপক্ষ প্রার্থী নির্বাচন পরিবেশ নষ্ট করেছে। জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নেয়ায় নিজেকে নির্বাচন থেকে প্রত্যাহার করে নিলাম। সেই সঙ্গে রাজনীতি থেকে অবসর নিলাম।

তিনি আরও বলেন, আমি রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার পর আমার সমাজসেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাব। যারা এতদিন আমাকে সহায়তা করেছেন এ জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি আমীর খসরু মাহমুদ বলেন, এখানকার ৮০ শতাংশ ভোটকেন্দ্র দখল হয়ে গেছে। সরকার সমর্থিত প্রার্থীর লোকজন এসে সব দখল করে নিয়েছে। তাহলে এটাকে তো আর ভোট বলে না। সুষ্ঠু নির্বাচন কিভাবে হবে? তাই নিজেদের প্রত্যাহার করে নিলাম।

২০১০ সালের ১৭ জুন। আজ থেকে ঠিক চার বছর ১০ মাস আগে আওয়ামী লীগের হ্যাটট্রিক বিজয়ী সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী বিএনপি সমর্থিত এম মনজুর আলমের কাছে ৯৫ হাজার ৫২৮ ভোটে পরাজিত হন। তিনবারের কাউন্সিলর মনজুর আলমের কাছে ‘হেভিওয়েট’ মহিউদ্দিন চৌধুরীর ভরাডুবি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হয়েছিল।

৬০ বর্গমাইলের চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে ৫ম বারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। ১৮ লাখ ১৩ হাজার ৪৪৯ জন ভোটার ৭১৯টি কেন্দ্রের ৪ হাজার ৯০৬টি বুথে ভোটাররা ভোট দেয়।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ইতিহাস : ২০১৩ সালের ২২ জুন চট্টগ্রাম পৌরসভার ১৫০ বছর পূর্তি হয়েছে। ১৮৬৩ সালে চট্টগ্রাম পৌরসভার প্রথম প্রশাসক ছিলেন মি. জে.ডি. ওয়ার্ড (ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট)। তিনি ১৮৬৩-৬৭ পর্যন্ত প্রশাসকের দায়িত্ব পালন করেন। কখনো প্রশাসক, কখনো চেয়ারম্যান হিসেবে এভাবে ২৩ জন পৌরসভার প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন (১৯৭৩-১৯৮২ পর্যন্ত)। চট্টগ্রাম পৌরসভা ১৯৮২ সালে চট্টগ্রাম পৌর করপোরেশনে রূপান্তরিত হয়। পৌর করপোরেশনের প্রথম প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ব্রিগেডিয়ার মফিজুর রহমান চৌধুরী (১৯৮২-৮৬)। এরপর প্রশাসক হিসেবে ব্যারিস্টার সুলতান আহমদ চৌধুরী (১৯৮৬-৮৭), মো. সেকান্দর হোসেন মিয়া (১৯৮৭-৮৮) এবং মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী (প্রশাসক ও চেয়ারম্যান) ১৯৮৮-৮৯ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৯ সালে চট্টগ্রাম পৌর করপোরেশন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে রূপান্তরিত হয়। মেয়রের দায়িত্বপালন করেন মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী (১৯৮৯-৯০)। এরপর মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন প্রশাসক হিসেবে ছিলেন ১৯৯১-১৯৯৩ পর্যন্ত। করপোরেশনের প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ১৯৯৪ সালে। জনগণের ভোটে প্রথম ওই নির্বাচনে মেয়র হন আওয়ামী লীগ সমর্থিত এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী। তিনি আরও দুটি নির্বাচনের (২০০০ ও ২০০৫) মাধ্যমে মেয়র নির্বাচিত হন। সর্বশেষ ২০১০ সালের ১৭ জুন করপোরেশনের ৪র্থ নির্বাচনে মহিউদ্দিন চৌধুরীকে পরাজিত করে বিএনপি সমর্থিত এম মনজুর আলম প্রথমবারের মতো মেয়র হন।