চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভ্যাকসিন: করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাইলফলক

বহুল প্রতীক্ষিত করোনার ভ্যাকসিন প্রয়োগ কর্মসূচি শুরু হয়েছে দেশে। বুধবার রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই কর্মসূচি উদ্বোধন করেছেন। গণভবন থেকে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত ছিলেন তিনি।

কুর্মিটোলা হাসপাতালের নার্স রুনু বেরুনিকা কস্তাকে দিয়ে দেশে করোনা ভ্যাকসিনেশন কর্মসূচি শুরু হয়। রুনু ছাড়া ভ্যাকসিন নিয়েছেন- চিকিৎসক আহমেদ লুৎফুল মবিন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা, ট্রাফিক পুলিশের মতিঝিল বিভাগের কর্মকর্তা দিদারুল ইসলাম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এম ইমরান হামিদ।

বিজ্ঞাপন

প্রথমদিনে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে প্রয়োগের জন্য ২০ ভায়েল (প্রতি ভায়েলে ১০টি ভ্যাকসিন) করোনার ভ্যাকসিন, বৃহস্পতিবার ঢাকার পাঁচটি হাসপাতালে ভ্যাকসিন প্রয়োগ কাজের জন্য ৮০ ভায়েল ভ্যাকসিন আজই ৫ হাসপাতালে পৌঁছে দেয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ইতোমধ্যে ভারত থেকে ৫০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দেশে এসেছে। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা উদ্ভাবিত এই ভ্যাকসিন আনা হয়েছে সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া থেকে ক্রয়চুক্তি অনুযায়ী। এর আগে ২১ জানুয়ারি বাংলাদেশকে ২০ লাখ ডোজ করোনা ভ্যাকসিন উপহার দেয় ভারত।

করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে দেশের মানুষের মধ্যে আগ্রহের পাশাপাশি নানারকম দ্বিধা রয়েছে। করোনায় বিপর্যস্ত পুরো বিশ্বে ভ্যাকসিন তৈরির প্রক্রিয়ায় এখন পর্যন্ত নেয়া হয়েছে সর্বোচ্চ সতর্কতা, কাজেই বিজ্ঞানীদের কাজের প্রতি আস্থা রেখে ভ্যাকসিনেশন কর্মসূচিতে সময়মতো অংশগ্রহণ একান্ত কাম্য।

আমাদের আশাবাদ, সব ধরণের দ্বিধা কাটিয়ে দেশের সর্বস্তরে ভ্যাকসিন প্রয়োগের মাধ্যমে দেশ নিরাপদ হয়ে উঠবে।