চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা নিয়ে জার্মান গণমাধ্যমের সংবাদ প্রত্যাখ্যান অ্যাস্ট্রাজেনেকার

অক্সফোর্ডের সঙ্গে সমন্বয় করে তৈরি করোনাভাইরাস টিকার কার্যকারিতা নিয়ে জার্মান গণমাধ্যম হ্যান্ডেলস্লাট ও বিল্ডের করা সংবাদ প্রত্যাখ্যান করেছে ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকা।

সম্প্রতি জার্মান পত্রিকা দুটির অনলাইন সংস্করণ প্রতিবেদনে বলা হয়, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি টিকা ৬৫ বছরের বেশি বয়স্ক লোকদের জন্য কার্যকর নয়। এই টিকা হলেও তা সর্বোচ্চ ৮ কিংবা ১০ শতাংশের নিচে কার্যকর হতে পারে।

বিজ্ঞাপন

বিল্ড তার অনলাইন প্রতিবেদনে লিখেছে, জার্মান কর্তৃপক্ষ এমনও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যে, অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা ৬৫ বছরের বেশি বয়স্কদের জন্য কার্যকারিতার বিষয়ে ইউরোপীয় মেডিসিন এজেন্সির কাছ থেকে অনুমোদন নাও পেতে পারে।

জার্মান গণমাধ্যমের এমন প্রতিবেদন পুরোপুরি প্রত্যাখ্যান করেছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা।

বিজ্ঞাপন

এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানিয়েছে, প্রবীণদের মাঝে টিকার কার্যকারিতা বিষয়ে যে প্রতিবেদন করা হয়েছে তা ‘সম্পূর্ণ ভুল’। 

অ্যাস্ট্রাজেনেকা বলছে, ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল ও রক্ত পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী প্রবীণদের মাঝে প্রতিরোধ ক্ষমতা দেখা গেছে।  একারণে যুক্তরাজ্যের যৌথ টিকাদান কর্মসূচির কমিটি প্রবীণদের মাঝে এই টিকা প্রদান সমর্থনও করেছে।

এদিকে অস্ট্রেলিয়াতে ফাইজার ও বায়োএনটেক এর টিকা অনুমোদন পেলেও এখনো অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা অনুমোদন পায়নি। যদিও অনেক অস্ট্রেলিয়ান অক্সফোর্ডের তৈরি এই টিকার প্রতীক্ষায় রয়েছেন।

গত ৩০ ডিসেম্বর যুক্তরাজ্যে সর্বপ্রথম অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকার অনুমোদন দেয়।  অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা যৌথ উদ্যোগে এই টিকা তৈরি করেছে।  করোনার এই টিকাকে সাধারণত সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য ও নিরাপদ মনে করা হচ্ছে।