চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভালো ফলনে খুশি শরীয়তপুরের গমচাষীরা

চলতি মৌসুমে শরীয়তপুরে গমের ভালো ফলন হয়েছে। সময় মতো সার ও বীজ পাওয়ায় এবং আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমিতে গমের আবাদ হয়েছে। কৃষি বিভাগের পরামর্শে উচ্চ ফলনশীল জাতের আবাদ করে ভালো ফলন পেয়েছে কৃষক।

চলতি মৌসুমে জেলার ৩ হাজার ৩শ’ ৬৭ হেক্টর জমিতে গম আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হলেও আবাদ হয়েছে ৩ হাজার ৭শ’ ১৪ হেক্টরে। উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ১০ হাজার ৪শ’ ৩৮ মেট্রিক টন ধরা হলেও ফলন ভালো হওয়ায় ১৬ হাজার মেট্রিক টনের বেশি ফলন পাওয়ার আশা করছে কৃষি বিভাগ। এতে গত আমন ও বোরো মৌসুমের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারবে বলেও মনে করছে কৃষক।

Advertisement

সেখানকার কৃষকরা জানায়, গমে উৎপাদন খরচ কম। ধানে উৎপাদন খরচ বেশি হয়ে যায়। তাই এবার ধান বাদ দিয়ে গম চাষ করেছে বেশিরভাগ কৃষক।

স্থানীয় কৃষি বিভাগ বলছে, বোরোর চেয়ে লাভজনক হওয়ায় গত মৌসুমের চেয়ে এবার অধিক জমিতে গমের আবাদ হয়েছে। ফলনও হয়েছে ভালো। গত মৌসুমে যেখানে হেক্টরপ্রতি সাড়ে ৩ থেকে ৪ মেট্রিক টন ফলন হয়েছে সেখানে এবার ৪ থেকে সাড়ে ৪ মেট্রিক টন ফলন পাওয়া গেছে। 

খামার বাড়ি শরীয়তপুরের উপ-পরিচালক মোঃ কবির হোসেন বলেন,  ২৫ ও ২৬ জাতের গমের চাষ বেশি হয়েছে এবার। তবে এসব জাতের বীজ আরো অনেক সরবরাহ করার দরকার কৃষকদের কাছে। ফলন ভালো হচ্ছে বলেই গম চাষে কৃষকরা বেশি আগ্রহী হচ্ছে।