চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভারতে হাজার হাজার কোটি রুপি ঘুষ দিয়েছে অ্যামাজন?

কেন্দ্রীয় সরকার বলছে, কোনো ধরনের দুর্নীতি বরদাস্ত করা হবে না

মার্কিন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, তাদের আইনি প্রতিনিধিরা ভারতে কয়েকজন কর্মকর্তাকে ঘুষ দিয়েছেন।

তবে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার জোর দিয়ে বলেছে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে ভারত ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি অনুসরণ করছে অর্থাৎ কোনো ধরনের দুর্নীতি বরদাস্ত করবে না কেন্দ্র।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এরই মধ্যে অ্যামাজন নিজেই ঘুষের অভিযোগ নিয়ে তদন্ত করছে।

এনডিটিভি জানিয়েছে, ঠিক কোন রাজ্যে, কবে ঘুষ দেওয়া হয়েছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। ভারতের কেন্দ্র সরকারের দাবি, যারা নিয়ম ভেঙে ঘুষ দিয়েছে, তাদের যাতে অবিলম্বে শাস্তির ব্যবস্থা করা হয়, সেই ব্যাপারেই অ্যামাজনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ।

অ্যামাজন লিগ্যাল ফি হিসেবে ৮ হাজার ৫০০ কোটি রুপি খরচ করেছে। তবে কোথায় কিভাবে এত টাকা খরচ হয়েছে তার কোনো সুনির্দিষ্ট তথ্য নেই।

বিজ্ঞাপন

কেন্দ্রীয় সরকার বলছে, কোথায় গেল সেই টাকা-অ্যামাজনের উচিৎ তা খুঁজে বের করা। গোটা সিস্টেমটা ঘুষ দিয়ে চালিয়ে দেওয়া মোটেই কাম্য নয়।

সম্প্রতি এক সূত্র থেকে অ্যামাজন জানতে পারে, সংস্থার কয়েকজন আইনি প্রতিনিধি সরকারি কর্মকর্তাদের ঘুষ দিয়েছে। এরপরই শুরু হয়েছে তদন্ত। কারা এ কাজ করেছে? তা খতিয়ে দেখছে অ্যামাজন ।

ইতিমধ্যেই সংস্থা বলেছে, এই ধরনের অভিযোগ পেলে তদন্ত করে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে অ্যামাজন। ঘুষের কথা স্বীকার বা অস্বীকার না করেই অ্যামাজনের দাবি, তারাও কোনও দুর্নীতিকে আমলে নেয় না।

অ্যামাজনের একজন মুখপাত্র বলেন, ‘দুর্নীতি আমরাও বরদাস্ত করি না। আমরা যে কোনও অন্যায়ের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিয়ে থাকি।’

তবে তদন্তে ঠিক কী দেখা যাচ্ছে, সে ব্যাপারে এখনও কিছু জানায়নি সংস্থাটি।